কোচকে চিঠি দিয়ে বিদায় চাইলেন কিংশুক

এসবিবি স্পোর্টস: অনেক ঘটা করে সবুজ-মেরুন ছেড়ে লাল-হলুদে এসেছিলেন তিনি। কিন্তু মাসখানেক যেতে না যেতেই ইস্টবেঙ্গল ছাড়ার বিষয়ে মনঃস্থির করেই ফেললেন কিংশুক দেবনাথ। কিন্তু কারণটা কী ?

ঝুলিতে আইএসএল ও আই লিগ। দেশের প্রথম সারির দু-দু’টি খেতাব। কিন্তু হঠাৎই যেন ‘ব্রাত্য’ হয়ে উঠলেন তিনি। বয়স 33 হলেও তা পারফর্ম্যান্সে ব্যাপক ছাপ ফেলার মতো নয়। আসলে ইস্টবেঙ্গলের স্প্যানিশ কোচের চোখে যে কিংশুক তেমন জায়গা করে নিতে পারলেন না। আলেজান্দ্রো দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই ধীরে ধীরে যেন অন্তরালেই চলে যেতে থাকলেন ভারতীয় ফুটবলের এই দাপুটে ডিফেন্ডার।

আই লিগ শুরুর আগের ঘটনা। প্রি-সিজন ক্যাম্প করতে মালয়েশিয়া উড়ে গিয়েছিল টিম ইস্টবেঙ্গল। কিন্তু সেখানে যাওয়ার আগে থেকেই স্প্যানিশ কোচের সঙ্গে দূরত্ব বাড়ছিল কিংশুকের। ক্লাবের কাছে তখনই ‘রিলিজ’ চেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু কিংশুককে বুঝিয়ে দলের সঙ্গে মালয়েশিয়া পাঠান কর্তারা। সেখানে গিয়েও আলেজান্দ্রো-কিংশুকের ‘টিউনিং’-এর অভাব চোখে পড়ে। মালয়েশিয়ায় একটিমাত্র প্রস্তুতি ম্যাচে কিংশুককে খেলান লাল-হলুদের স্প্যানিশ কোচ। ফিরে আসার পরে দু’জনের সম্পর্কে আরও অবনতি হয়। এই পরিস্থিতিতে আর নিজের সম্মান খোয়াতে নারাজ শ্রীরামপুরের ছেলেটি। এবার রীতিমতো কোচকে চিঠি দিয়ে ‘রিলিজ’ চেয়ে বসলেন কিংশুক। পরিস্থিতি যা সেক্ষেত্রে মনে করা হচ্ছে, কিংশুককে হয়তো ছেড়েই দেবে ইস্টবেঙ্গল।

প্রশ্ন, এরপরে কিংশুক কী করবেন ? মাস দুয়েক বসে থাকা ছাড়া আর কোনও উপায় নেই। আগামী জানুয়ারির ‘টান্সফার উইন্ডো’-তে ফের বাগানে ফিরতেই পারেন তিনি। তবে সবচেয়ে প্রশ্ন, মোহনবাগান দলে নেবে তো তাদের প্রাক্তন অধিনায়ককে ?

সময়ই এর উত্তর দেবে।