একজনের দুশ্চিন্তায় গোলখরা, অন্যজন দুষছেন ভাগ্যকে

এসবিবি: 16 ডিসেম্বর ইস্টবেঙ্গল ম্যাচ। হাতে আর ঠিক 13 দিন। তার আগে আর কোনও ম্যাচ নেই মেরিনার্সদের। এই সময়টাকে পুরোদস্তুর ব্যবহার করতে চাইছেন বাগান কোচ শঙ্করলাল চক্রবর্তী।

শনিবাসরীয় চেন্নাই ম্যাচেও সেই চেনা ছবি। সনি নর্ডির দুরন্ত গোল সবুজ-মেরুন সমর্থকদের তৃপ্ত করলেও দলের পারফর্ম্যান্সে হতাশ যে সকলেই। প্রতিটি ম্যাচেই যে খারাপ খেলছে মোহনবাগান তা নয়। একাধিক সুযোগ তৈরি হচ্ছে। কিন্তু গোলের খরা যে কাটছে না কিছুতেই। বিপক্ষের ডি-বক্সে ঢুকে কেমন যেন খেই হারিয়ে ফেলছেন ফুটবলাররা। কেন এমন হচ্ছে তা নিয়েই ধন্দে কোচ শঙ্করলাল চক্রবর্তী।

শনিবার ম্যাচশেষে ফুটবলারদের সঙ্গে এ বিষয়টি নিয়ে আলোচনাও করেন তিনি। বাগান কোচ মনে করেন, যে ভাবেই হোক স্ট্রাইকারদের গোলখরা কাটাতেই হবে। কারণ 16 ডিসেম্বর ডার্বিতে এই ভুল হলে ম্যাচ বেরিয়ে যাবে হাত থেকে। তাই ডার্বির আগে যেহেতু অনেকটা সময় পাওয়া যাচ্ছে, এই সময়ে হেনরি-পিন্টুদের সমস্যা খুঁজে বের করতে মরিয়া শঙ্করলাল। গোলমুখে গিয়ে ওঁদের খেই হারানো রুখতে অনুশীলনে বিশেষ কিছু ব্যবস্থা নিতে পারেন বাগান কোচ।

মোহনবাগানে যখন ‘পোস্টমর্টেম’-এর কেন্দ্রে গোলখরা, চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ইস্টবেঙ্গল যে তখন অন্য দুশ্চিন্তায় ভাসছে। কোচ আলেসান্দ্রো মেনেন্দেজ মনে করছেন, দলের সঙ্গে ভাগ্য ঠিকঠাক সাথ দিচ্ছে না। পাশাপাশি ভুল তো আছেই। সেগুলি শুধরে নিয়েই ঘরের মাঠে মিনার্ভা ম্যাচে জয় চাইছেন লাল-হলুদের স্প্যানিশ কোচ। আলেসান্দ্রো- আক্ষেপ, গত দু’ম্যাচে ভাগ্য সঙ্গে ছিল না। তাই গোল পায়নি দল।