ভারতে মোবাইল ফোনের অজানা তথ্য

সীমন্ত রায়

বর্তমান সময়ে আমাদের সকলের খুব গুরুত্বপূর্ণ ও অতিপ্রয়োজনীয় একটি বস্তু হল মোবাইল ফোন। আজ যত সহজে আমরা এই মোবাইল বা স্মার্টফোন ব‍্যাবহার ও তার সুবিধা ভোগ করতে পারি কিন্তু কিছু বছর আগে তা এতটা সহজলভ্য একদমই ছিল না।

এখন যেমন প্রতি মাসে বিভিন্ন কোম্পানির নতুন নতুন স্মার্টফোন বের হয় তাদের নানা ধরনের সুযোগ সুবিধা নিয়ে, অতীতে তা একদমই সহজ ছিল না। তখন এটা ব‍্যাবহার হতো শুধুমাত্র ফোন ও মেসেজ করার জন্য। এবং তার ছিল খুবই খরচ সাপেক্ষ, তখন একটা ফোন করতে খরচ হতো মিনিটে 16টাকা এবং যার কাছে ফোন যাবে সে ফোন ধরলে অর্থাৎ incoming call-এর জন্য তার খরচ হতো মিনিটে 8টাকা। অর্থাৎ সম্পূর্ণ 1 মিনিট কথা বলার জন্য খরচ হতো 24টাকা।

ভারতে মোবাইল ফোনের ইতিহাস 
1995 সালে 31শে জুলাই অর্থাৎ আজকের দিনেই ভারতের হয়ে প্রথম মোবাইল ফোনটি করেন তৎকলীন মুখ্যমন্ত্রী জ্যোতি বসু, এবং সেইটাই ছিল ভারতের প্রথম কোন ব্যক্তি যিনি মোবাইলে কথা বলেন।

এর ইতিহাস তবে শুনুন, 1994 সালে তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী জ্যোতি বসু ইচ্ছে অনুযায়ী কলকাতাকে তিনি প্রথম ‘মোবাইল নেটওয়ার্ক সিটি’ তৈরি করতে চেয়েছিলেন। ভাবনা অনুযায়ী কাজ, তখনই তিনি যোগাযোগ করলেন Modi Telstra- এর চেয়ারম্যান ভূপেন্দ্র কুমার মোদি,(Modi Telstra পরবর্তী সময়ে spice telecom নামে পরিচিতি পায়) এবং সমস্ত প্রকার ব‍্যাবস্থা নেওয়ার কথা বলেন।

এরপর বিকে মোদি যোগাযোগ করেন Nokia-র সঙ্গে এবং সমস্ত কিছুর আলোচনার পর একটি দিন স্থির করা হল, আর ঐ দিনটা ছিল 31শে জুলাই, 1995।

এই দিন তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী জ্যোতি বসু কলকাতার রাইটার্স বিল্ডিং-এ বসে প্রথম ফোনটি করেন দিল্লির তৎকালীন ইউনিয়ন কমিউনিকেশন মিনিস্টার ‘শুখ রাম’ কে। আর এটি ছিল ভারতের ইতিহাসে একটি অতিগুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ। এই সময় ভারতের প্রধানমন্ত্রী ছিলেন পিভি নরসীংহ রাও।

ভারতের মোবাইল সংক্রান্ত কয়েকটি খুঁটিনাটি খবর-
প্রথম ভারতীয় রিংটোন “সারে জাহাসে আচ্ছা” শোনা যায় “Nokia 5110”-তে 1958 সালে।
“Nokia 3210”-এ প্রথম “হিন্দি মেনু” লক্ষ্য করা যায়।
“Made for India phone” ভারতের জন্য “Nokia 1100” বের করা হয়।
ভারতের প্রথম ক‍্যামেরা ফোন হল “Nokia 7650″।