সাইকেলে ‘বেটি বাঁচাও’-এর প্রচারে এভারেস্ট জয়ী মহিলা

এসবিবি : কন্যাভ্রুণ হত্যা নয়। শেখাতে হবে মেয়েকে পড়াশোনা । কেন্দ্রীয় সরকারের এই প্রকল্পের কথা দেশের সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে সাইকেলে চড়ে পাঁচ হাজার কিলোমিটার পথ ঘুরছেন বেড়াচ্ছেন হরিয়ানার কনিষ্ঠতম এভারেস্ট বিজয়ী সুনীতা সিংহ চোকেন। শনিবার তিনি বোকারো থেকে দুর্গাপুরে এসে পৌঁছন।

কেন্দ্রীয় সরকারের ‘বেটি বাঁচাও, বেটি পড়াও’ প্রকল্পের ‘ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর’ হরিয়ানার রেওয়ারির মেয়ে সুনীতা। এই প্রকল্প ও বৃক্ষরোপণের বার্তা দেশের নানা জায়গায় ছড়িয়ে দিতে গত 15 জুলাই সুনীতা গুজরাতের সোমনাথ মন্দির থেকে সাইকেলে যাত্রা শুরু করেছেন। 40 দিনে সিকিম হয়ে নেপাল পর্যন্ত পাঁচ হাজার কিলোমিটার সাইকেল যাত্রা করবেন বলে ঠিক করেছেন সুনীতা। ইতিমধ্যেই গুজরাত, মধ্যপ্রদেশ, ছত্তিশগঢ়, ঝাড়খণ্ড-সহ নানা রাজ্য পাড়ি দিয়েছেন তিনি।

এ দিন ২ নম্বর জাতীয় সড়ক ধরে দুপুর 3 টেয় তিনি দুর্গাপুর পৌঁছলে গোপালমাঠে তাঁকে এক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা স্বাগত জানায়। ওই সংস্থার সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন সুনীতাও। পরে তাঁকে ওই সংস্থা ও একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে যৌথ ভাবে সংবর্ধনা জানানো হয়। রাতে দুর্গাপুরেই থেকে আজ, রবিবার সকালে ফের তাঁর রওনা হওয়ার কথা।

কী ভাবে চলছে প্রচার? সুনীতাদেবী জানান, যাত্রাপথে নানা স্কুল ও সংস্থায় তিনি সচেতনতার বার্তা প্রচার করছেন। পাশে থেকেছে নানা এলাকার স্থানীয় প্রশাসন ও এলাকাবাসী।

তবে খারাপ রাস্তা ও আবহাওয়ার কারণে মাঝেসাঝে সমস্যাও হয়েছে বলে জানান তিনি। যেমন, বুধবার ছত্তিশগঢ়ের যশপুর থেকে ঝাড়খণ্ডের জুমলা যাওয়ার পথে তিনি খারাপ আবহাওয়ার মাঝে পড়েন। রাস্তাও খারাপ ছিল। সারা দিনে মাত্র 54 কিলোমিটার পথ পেরোতে পেরেছিলেন। তবে সুনীতার কথায়, ”পথে নানা রকম সমস্যা আছে। কিন্তু তা বলে কোনও হতাশা থাকলে হবে না। প্রতিটা দিনই নতুন উদ্যমে যাত্রা শুরু করি।”

এর আগেও তিনি দেশ জুড়ে সচেতনতার বার্তা দিতে সাইকেল যাত্রায় বেরিয়েছেন। 2017-য় 46 দিনে সাইকেলে কন্যাকুমারী থেকে লাদাখের খারদুংলা পর্যন্ত মোট 4656 কিলোমিটার পথ পেরিয়েছিলেন তিনি। এ বারের যাত্রা সম্পন্ন হলে মহিলা হিসেবে সাইকেলে একা পাঁচ হাজার কিলোমিটার পথ পেরনোর রেকর্ড তৈরি হবে বলে  জানিয়েছেন সুনীতা।