অবশেষে জালে দিল্লির ‘লেডি ডন’

এসবিবি:   ছোটা শাকিল, ছোটা রাজন, অরুণ গাউলিদের চেয়ে কোনও অংশে কম যান না তিনি। সুপারি নিয়ে খুন, অপহরণ, ডাকাতি, অস্ত্র-মদের কারবার, তোলাবাজির মতো শতাধিক ঘটনায় অভিযুক্ত। তিনি দিল্লির মহিলা ‘ডন’। আসল নাম বসিরণ। অন্ধকার জগতে পরিচিতি ‘মাম্মি’ নামে। পুলিশের খাতায় মোস্ট ওয়ান্টেড। দেশের ভয়ঙ্করতম পাঁচ মহিলার অন্যতম ‘মাম্মি’র খাসতালুক সঙ্গম বিহার। এহেন লেডি ডনই অবশেষে পুলিশের জালে। চার দশকেরও বেশি সময় ধরে গ্যাং চালানোর পর 62 বছর বয়সে গ্রেফতার হলেন তিনি।

বারবার আদালতে হাজিরার নির্দেশ অমান্য করা ‘প্রক্লেমড অফেন্ডার’ বসিরণের সম্পত্তি সম্প্রতি বাজেয়াপ্ত করার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছিল। সঙ্গম বিহার থানায় গোপন সূত্রের খবর অনুযায়ী, সেই বিষয়ে পরবর্তী পদক্ষেপ ঠিক করতে সঙ্গম বিহারে নিজের আট ছেলের সঙ্গে আলোচনায় বসছেন। দিল্লি পুলিশের ডিসি সাউথ রোমিল বানিয়া জানিয়েছেন, খবর পেয়েই অভিযানের প্রস্তুতি শুরু হয়। সঙ্গম বিহারের পুলিশ অফিসার উপেন্দর সিংহের নেতৃত্বে গোপনে অভিযান চালানো হয়। জালে ধরা পড়েন বসিরণ ওরফে মাম্মি। 

জালে ফেলার চেষ্টা এর আগেও করেছে দিল্লি পুলিশ। খুন, অপহরণ, মারধর-সহ সব মিলিয়ে পুলিশের খাতায় 112টি অভিযোগ রয়েছে এই লেডি ডনের বিরুদ্ধে। কিন্তু প্রতিবারই আইনের জাল কেটে আর পুলিশের চোখে ধুলো দিয়ে পালিয়েছেন তিনি। অবশেষে মাস সাতেক আগে একটি খুনের পর থেকেই কার্যত হাত ধুয়ে বসিরণের পিছনে পড়ে পুলিশ।