গ্রিন করিডর করেও হল না হার্ট প্রতিস্থাপন

ফাইল ছবি
এসবিবি:  ফের অঙ্গদানের নজির গড়ল কলকাতা। এ নিয়ে সাত দিনে দ্বিতীয়বার। আবারও গ্রিন করিডর করে অঙ্গ প্রতিস্থাপন। কিন্তু এইবার হার্ট পাওয়া গেলেও করা গেল না প্রতিস্থাপন।
বুধবার অ্যাপোলো হাসপাতালে ব্রেন ডেথ হয় খড়দার বাসিন্দা অদিতি সিনহার। তাঁর অঙ্গদানের জন্য পরিবারকে রাজি করায় কর্তৃপক্ষ। এরপর তাঁর পরিবারের লোকজন লিভার, কিডনি এবং কর্নিয়া দান করেন। ভোর রাতে একটি কিডনি এবং লিভার গ্রিন করিডর করে অ্যাপোলো থেকে পাঠিয়ে দেওয়া হয় এসএসকেএম হাসপাতালে। লিভার প্রতিস্থাপন চলছে নদিয়ার বাসিন্দা বছর তিপ্পান্নর চণ্ডীচরণ ঘোষের দেহে। বৃহস্পতিবার ভোর থেকেই লিভার প্রতিস্থাপন প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে গত দেড় বছর ধরে লিভারের সমস্যায় ভুগতে থাকা চণ্ডীচরণ বাবুর দেহে। এসএসকেএমে ভর্তি আরও এক রোগী পাচ্ছেন আর একটি কিডনি। অদিতি দেবীর আরও একটি কিডনি প্রতিস্থাপন হচ্ছে অ্যাপোলেতে। ট্যাংরার বাসিন্দা উমা পারেখের দেহে।

বুধবার অ্যাপোলোতে অদিতি সিনহার পাশাপাশি ব্রেন ডেথ হয় আরও এক রোগীর। দুই পরিবারের সম্মতি থাকা স্বত্ত্বেও হার্ট প্রতিস্থাপন সম্ভব হল না। হার্টও পাওয়া গিয়েছিল, কিন্তু একজনের হার্টে ব্লকেজ। অন্যজন অত্যন্ত বয়স্ক। দুই পরিবারই হার্ট দেওয়ার জন্য সম্মতি দেয়। সেইমতো শুরু হয় গ্রহিতার খোঁজ। অ্যাপোলো প্রস্তাব দেয় ফর্টিসকে। কিন্তু গ্রহিতা থাকা স্বত্ত্বেও একটি হার্টে দুটি ব্লকেজ অন্যটি প্রবীণ মানুষের হার্ট  হওয়ায় ,হার্ট প্রতিস্থাপনে রাজি হন নি ফর্টিসের চিকিত্সকরা।