অমিত শাহই ভোট পর্যন্ত সভাপতি

এসবিবি,নয়াদিল্লি: অমিত শাহের নেতৃত্বেই 2019-এর লোকসভা নির্বাচনে লড়বে বিজেপি।   দিল্লি দখলে রাখার জন্য ব্লুপ্রিন্টও প্রস্তুত করে ফেলেছে গেরুয়া শিবির। বিরোধীদের ছত্রভঙ্গ করতে নতুন কৌশল নেওয়া হচ্ছে। শনিবার দিল্লিতে বিজেপির দুদিনের জাতীয় কর্মসমিতির বৈঠক শুরু হয়েছে । প্রথম দিনে এই প্রস্তাব নেওয়া হয়েছে। চার রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচন ও লোকসভা নির্বাচনের রণকৌশল ঠিক করতে বেশ কিছু পদক্ষেপও নিতে চায় কেন্দ্রের শাসকদল। ‘অজেয় বিজেপি’ স্লোগান সামনে রেখে বিধানসভা থেকে লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি লড়বে বলে জানা গিয়েছে। এসসি-এসটি আইন নিয়ে বিক্ষোভের মধ্যে এদিন দিল্লির আম্বেদকর আন্তর্জাতিক সভাগৃহে বাবাসাহেবের ছবিতে শ্রদ্ধা জানান অমিত শাহ। একই সঙ্গে বলেন, 2019 এর নির্বাচনে এই ইস্যুর প্রভাব পড়বে না। লোকসভার আগে বিধানসভা নির্বাচনকেও দারুণভাবে গুরুত্ব দিচ্ছে বিজেপি। গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে তেলেঙ্গানার ভোটকে। যেহেতু টিআরএস সুপ্রিমো কে চন্দ্রশেখর রাও জোটের প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছেন,তাই তেলেঙ্গানায় পার্টিকে চাঙ্গা করতে নতুন করতে পরিকল্পনা শুরু করেছে বিজেপি। সবথেকে এখন মাথা ব্যথার কারণ মধ্যপ্রদেশ, ছত্তিসগড়, রাজস্থানের বিধানসভা নির্বাচন। প্রতিষ্ঠান বিরোধী হাওয়ার সঙ্গে গোষ্ঠী বিবাদ বিজেপিকে বেগ দিতে পারে বলে মনে করছে পর্যবেক্ষক মহল। এসসি-এসটি আইন ও সরকার বিরোধিতার হাওয়া রুখে জয়ের পথ বার করতে এই বৈঠকে আলোচনা হবে বলে মনে করা হচ্ছে। নিজের ভোটব্যাঙ্ক দখলে রেখে কী করে বিরোধী শিবিরে হানা দেওয়া যায় তা নিয়ে ভাবনা চিন্তা করবেন বিজেপি নেতারা।