দুরন্ত ভারত রুখে দিল চিনকে

এসবিবি স্পোর্টস: ভারতীয় ফুটবলের ইতিহাসে এই প্রথম। চিনের মাটিতে চিনকে রুখে দিয়ে সুনীল-গুরপ্রীতরা বুঝিয়ে গেলেন, “হ্যাটস অফ” বলার সময় সত্যি এসেছে।

দীর্ঘ 21 বছর পরে এশিয়ার অন্যতম শক্তিধর দেশটির বিরুদ্ধে নেমেছিল ভারত। নেহরু কাপের সে ম্যাচে ভারতের হয়ে একমাত্র গোলটি করেছিলেন ভাইচুং ভুটিয়া। যদিও সৈয়দ নইমুদ্দিনের ছেলেরা সেবার 1-2 ব্যবধানে হেরে গিয়েছিল চিনের কাছে। এখনও পর্যন্ত মোট 17বার চিনের মুখোমুখি হয়েছে ভারত।  কিন্তু একবারও জয়ের মুখ দেখেনি মেন ইন ব্লু। তার উপর এবার তো লড়াই আরও কঠিন ছিল বিদেশি দলটির দায়িত্বে ইতালির বিশ্বকাপজয়ী কোচ মার্সেলো লিপ্পি থাকায়।

তবে ভারতীয় কোচ স্টিভেন কন্সট্যানটাইন আগেই আশার বাণী শুনিয়েছিলেন। ‘ছেলেরা লড়বে’, এই কথার মধ্যেই যে অনেক আত্মবিশ্বাস ছড়িয়ে থাকে। শনিবার সুজহাও অলিম্পিক স্টেডিয়ামে আন্তর্জাতিক ফিফা ফ্রেন্ডলিতে চিনের বিরুদ্ধে গোলশূন্য ড্র করবে টিম ইন্ডিয়া, এ কথা যে স্বপ্নেও ভাবেনি অতি বড়  ভারতীয় ফুটবলপ্রেমীও।

রেড ড্রাগনদের বিরুদ্ধে ম্যাচের শুরু থেকেই নিজেদের মেলে ধরে স্টিভেনের ছেলেরা। প্রথমার্ধের 13 মিনিটেই গোলের সুযোগ পেয়েছিল ভারত। প্রীতম কোটালের শট অসম্ভব দৃঢ়তার সঙ্গে সেভ করেন চিনের গোলরক্ষক। এরপরে চার মিনিটের মিনিটেই ফ্রি-কিক পেয়েছিলেন সুনীল ছেত্রী। কিন্তু কাজের কাজটি হয়নি। সুনীলের ফ্রি-কিক পোস্টের উপর দিয়েই বেরিয়ে যায়। তবে দ্বিতীয়ার্ধে চীনের আক্রমণগুলি ছিল বেশ চোখে পড়ার মতো। একের পর এক চিনা আক্রমণকে প্রতিহত করেন ভারতীয় গোলরক্ষক গুরপ্রীত সিং। তবে শুধু গোলরক্ষক বলে নয়, ভারতীয় ডিফেন্ডারদের প্রশংসা করতেই হয়। সন্দেশ ঝিঙ্গান, আনাসরাও এদিন বুঝিয়ে গেলেন, ভারতীয় ফুটবল উন্নতিরই পথে।