‌অক্টোবর ক্লোজিংয়ে এসপার-ওসপার লড়াইয়ে বুল-বেয়াররা

পার্থসারথি গুহ

‌অক্টোবরের সেশন কাটিয়ে এবার নভেম্বরে যাওয়ার পালা। নয়া সপ্তাহের বৃহস্পতিবার এই সন্ধিক্ষণে উপনীত হবে ভারতীয় শেয়ার বাজার। স্বাভাবিকভাবেই সবার নজর থাকবে ঠিক কোন জায়গায় অক্টোবর ক্লোজিং সাঙ্গ করে অর্থবাজার। বলাবাহুল্য, নিফটি ও সেনসেক্সের জন্য বেশ কিছু সীমা-পরিসীমা নির্দিষ্ট করে দিয়েছেন শেয়ার বিশেষজ্ঞরা। তাঁদের বক্তব্য, 10,200-র ওপর অক্টোবরের ক্লোজিংটা খুব জরুরি। এটা ভেঙে বন্ধ করলে টেকনিক্যালি অনেক খারাপ পরিস্থিতি তৈরি হতে পারে। সেটা হবে অবশ্য ধাপে ধাপে।
‌দেশের খারাপ খবর তো ছিলই এখন তার দোসর হয়েছে আমেরিকা ও ইউরোপের অর্থবাজারের ধস। বিদেশের বাজার থেকে আসা ক্রমাগত খারাপ খবর টেনে নামাচ্ছে ভারতীয় অর্থবাজারকে। এই উথাল-পাতালের মাঝে পড়ে নড়ে যাচ্ছে লগ্নিকারীদের আত্মবিশ্বাস। যা চিন্তায় রাখবে আগামী কিছুদিনের জন্য তো বটেই। শেয়ার বিশেষজ্ঞরা যে হিসেবটা কষছেন সেই অনুযায়ী 10,100-10,700 হল নিফটির গতিপথ। এই 600পয়েন্টের খেলাটাই চলছে এখন। এর মধ্যে নিফটি 10,400 থেকে 10.300 র মধ্যে ভালো একটা সাপোর্ট খুঁজে নিতে পারে বলে বিশেষজ্ঞদের অনুমান। এই জায়গাটা ভেঙে গেলেই মুশকিল। সে জন্যই এতটা গুরুত্ব পাচ্ছে অক্টোবর ক্লোজিং। বুল বেয়ারের যে দ্বন্দ্বটা চলছে তারও একটা এসপার-ওসপার হওয়া বিশেষ জরুরি। এটা যে তেজি বাজার চলছে তা বোঝানো যেমন দরকার বুলদের জন্য, ঠিক তেমনই বেয়ারদের প্রমাণ করার তাগিদ হয়ে দাঁড়িয়েছে ইয়ে হ্যায় বেচুবাবু কা জমানা।