আকাশে নতুন চাঁদ তৈরি করছে চিন!

এসবিবি : চিনের চাঁদ। ঘাবড়াবেন না, এটাই বাস্তব। আকাশে আর এক চাঁদ তৈরি করছে চিন। নাম চায়না মুন। 2020 সালের মধ্যেই তৈরি হয়ে যাবে এই চাঁদ। আপাতত রয়েছে প্রস্তুতি পর্বে। আকাশেই পাঠানো হবে এই চাঁদ। আর অসংখ্য গ্রহ-উপগ্রহের সঙ্গে চায়না মুনকেও দেখা যাবে।

কিন্তু কেন এই চাঁদ প্রতিস্থাপন মহাকাশে! তাহলে জানতে হবে আসল কাহিনি। আর চিন কেন আজও ভারতের থেকে কয়েক যোজন এগিয়ে তা এই ঘটনাই প্রমাণ করবে। চিনের শহর চান্ডুর আকাশেই এই চায়না মুন পাঠানো হবে। চাঁদ পৃথিবী থেকে প্রায় চার লক্ষ কিলোমিটার দূরে আছে। আর এই চাঁদ থাকবে 500 কিলোমিটার দূরে। এটা এলুমিনেটেড স্যাটেলাইটের কাজ করবে। এটায় থাকবে এলিমুনেটেড কোটিন, যা সানলাইটকে রিফ্লেক্ট করবে। আর এই রিফ্লেকশান থেকেই ম্যান মেইড মুন তৈরি হবে। ফলে ওই চিনের ওই চান্ডু শহরে স্ট্রিট লাইটের কোনও প্রয়োজন হবে না বলে মনে করা হচ্ছে। চাঁদের চাইতে আট গুন বেশি আলো দিতে পারবে এই চিনি চাঁদ। বছরে স্ট্রিট লাইটের জন্য চান্ডু শহরে খরচ হয় প্রায় 173 মিলিয়ন ডলার। চায়না মুন এই খরচ বাঁচিয়ে দেবে বলা আশা করা হচ্ছে। এরপরেও চিনি প্রযুক্তিকে হিংসা না করে পারা যায়!