যাদবপুরে যুবতীর ছবি নিষিদ্ধ ওয়েবসাইটে, আটক মূল অভযুক্ত 1 এক মহিলা

এসবিবি : যুবতীর ছবি নিষিদ্ধ ওয়েবসাইটে। বুধবার এই ঘটনায় আটক করা হল মূল অভিযুক্ত 1 মহিলাকে। যাদবপুরের ঘটনা। এসকর্ট ইন্টারনেটে এসকর্ট সার্ভিসের ওয়েবসাইটে যুবতির ছবি, ফোন নম্বর এবং ঠিকানা দেওয়ার ঘটনায় পলাতক ছিল ওই অভিযুক্ত। সূত্রের খবর, তাকে আটক করেছে লালবাজারের সাইবার ক্রাইম থানার তদন্তকারীরা। জানা গিয়েছে, এই ঘটনার সঙ্গে যুক্ত থাকা অভিযোগে  গত 7 ডিসেম্বর শুক্রবার গৌরব বর্মা নামে এক যুবককে গ্রেফতার করে সাইবার ক্রাইম থানার অফিসাররা। তাকে জেরা করার পরই পুলিশ মূল অভিযুক্তের খোঁজ পায়। বুধবার মূল অভিযুক্তকে আটক করেছে পুলিশ।

আরও পড়ুন-বোমার ভুয়ো খবরে ফেসবুকের হেডকোয়ার্টারে আতঙ্ক

উল্লেখ্য, একটি নিষিদ্ধ ওয়েবসাইটে  আপলোড করা হয় যাদবপুর থানা এলাকার আজাদগরের এক যুবতীর ছবি। সঙ্গে তার ডাকনাম, কর্ম ও পরিচয়। দেওয়া হয় ওই তাঁর ফোন নম্বরও। পরে ওই যুবতির ভাইয়ের বউয়ের ছবিও আপলোড করা হয়। দিয়ে দেওয়া হয় ভাইয়ের মোবাইল নম্বর। পরে দেওয়া হয় তাঁর বাড়ির ঠিকানা। সঙ্গে বাড়ির গেটের ছবি।

আরও পড়ুন-দোষী সাব্যস্ত লস্কর-ই-তইবার জঙ্গী, বৃহস্পতিবার সাজা ঘোষণা

এবার দিনে রাতে অচেনা মানুষের ভিড়। যুবতীর নাম ধরে ডাকাডাকি। আওয়াজ না পেয়ে দরজায় ধাক্কা। ঘটনায় অতিষ্ঠ হয়ে যান ওই পরিবারের সদস্যরা। আতঙ্কে প্রায় ঘরবন্দী করে ফেলেছিলেন নিজেদের। গত 4 অক্টোবর কলকাতা পুলিশের সাইবার ক্রাইম থানায় অভিযোগ দায়ের করেন ওই যুবতী। সেই অভিযোগের সূত্র ধরে গৌরব বর্মাকে গ্রেপ্তার করা হয় চলতি মাসের 7 তারিখ। বুধবার সকাল সাড়ে দশটা নাগাদ আটক করা হয় মূল অভিযুক্তকে।

আরও পড়ুন-ফ্রান্সে দুষ্কৃতী হামলা, নিহত 3

পুলিশ জানিয়েছে, জেরায় গৌরব স্বীকার করে, মূল অভিযুক্ত আটক মহিলার নাম। তারপরই শুরু হয় তার খোঁজ। বুধবার ওই মহিলাকে  আজাদগড়ের বাড়ি থেকে আটক করে পুলিশ।