প্রধানমন্ত্রীর নাম ঘোষণা করলেন সোমেন মিত্র

এসবিবি: রানি রাসমনি অ্যাভেনিউতে প্রদেশ কংগ্রেসের সভায় অন্য ছবি ধরা পড়ল বুধবার। গত মঙ্গলবার পাঁচ রাজ্যের নির্বাচনী ফলাফল বাংলা কংগ্রেসকে কী ভাবে উজ্জীবিত করে তুলেছে, সেটাই স্পষ্ট করে দিল এ দিনের মঞ্চ।
এ দিন মঞ্চে দেখা যায় প্রদেশ কংগ্রেসের সমস্ত তথাকথিত সমস্ত গোষ্ঠীর নেতৃত্বকেই। ছিলেন অধীররঞ্জন চৌধুরী, সোমেন মিত্র এবং দীপা দাশমুন্সি-সহ সমস্ত প্রদেশ নেতৃত্বই। মঞ্চ থেকে আগামী লোকসভা নির্বাচনে বিজেপিকে ক্ষমতাচ্যুত করার

পাশাপাশি রাজ্য জুড়ে আন্দোলনে নামার কথা ঘোষণা করেন তাঁরা।
প্রদেশ সভাপতি সোমেনবাবু বলেন, “ভারতে স্বৈরতন্ত্রের কোনো জায়গা নেই। কোনো একটা নির্দিষ্ট লোকের মতো করে দেশ চলবে না। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেছিলেন, তিনি দুর্নীতিমুক্ত ভারত গড়বেন। এর পর তিনি দাবি করেন, কংগ্রেস-মুক্ত ভারত গড়বেন। কিন্তু কংগ্রেস সর্বভারতীয় সভাপতি রাহুল গান্ধী বলেছেন, তিনি বিজেপি-মুক্ত ভারত চান না। এটাই ভারতের গণতন্ত্র। এই বহুমতকে প্রাধান্য দিয়েই কংগ্রেস আগামী 2019 সালের সাধারণ নির্বাচনে কেন্দ্রে সরকার গড়বে”।
এ দিন সোমেনবাবু স্পষ্ট করেই জানিয়ে দেন, “2019 সালে ভারতের প্রধানমন্ত্রী হবেন রাহুল গান্ধী”।