নেতা না থাকলে কী হয় বোঝাতে ভারতের কংগ্রেসের নাম নিলেন হাসিনা

এসবিবি: বাংলাদেশের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লিগের কাছে দুরমুশ হয়েছে বিরোধী দলগুলি।নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে যখন ফের সরকার গড়তে চলেছে হাসিনার দল, তখন অস্তিত্বের সঙ্কটে প্রধান বিরোধী দল বিএনপি।ভোটের ফলাফল ব্যাখ্যা করে বিরোধীদের ব্যর্থতার জন্য নেতৃত্বের সঙ্কটকেই দায়ী করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।যোগ্য নেতৃত্বের অভাব হলে কী হয় বোঝাতে মুজিবকন্যা টেনে এনেছেন প্রতিবেশী ভারতের শতাব্দীপ্রাচীন দল কংগ্রেসের কথা।বলেছেন, কংগ্রেসের কী অবস্থা হয়েছে দেখেছেন?মানুষ যদি সামনে কোনও নেতা বা প্রধানমন্ত্রী পদে কোনও মুখ না পায় তাহলে ভোট দেবে কাকে?ভারতে একসময় বিজেপি মাত্র দুটি আসন পেয়েছিল আর রাজীব গান্ধী জিতেছিলেন।নির্বাচনের সময় মানুষ দেখতে চায় কোনও দলকে ক্ষমতায় আনলে কে নেতৃত্ব দেবেন, দেশের দায়িত্ব সঠিকভাবে পরিচালনা করতে পারবেন।কোনও উপযুক্ত নেতা না থাকাতেই বিএনপির এই হাল!

হাসিনার কথায়, মানুষ দেখছে বিএনপির সর্বোচ্চ নেত্রী দুর্নীতির দায়ে জেল খাটছেন।তার পরের নেতা যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের সাজাপ্রাপ্ত ও দেশ থেকে পলাতক।তাহলে মানুষ ওদের ভোট দেবে কেন?এর উপর ওরা যুদ্ধাপরাধী জামাতের সঙ্গে হাত মিলিয়ে ভোট বানচালের ষড়যন্ত্র করছিল।প্রসঙ্গত, যে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে বিএনপি জোট করেছিল তার নেতা কামাল হোসেন আগেই ঘোষণা করেছিলেন তিনি কোনও নেতা-মন্ত্রী হওয়ার দৌড়ে নেই।ফলে এক্ষেত্রেও হাসিনার ইঙ্গিত স্পষ্ট।মোট কথা,জনগণ উপযুক্ত নেতা খুঁজে না পেলে ফল কীরকম একপেশে হতে পারে দেখিয়ে দিল বাংলাদেশের ভোট।

আরও পড়ুন-  একদম নিঃশব্দে শেষযাত্রায় মৃণাল সেন