অপসারণের পর বিস্ফোরক অলোক বর্মা

এসবিবি : মুখ খুললেন অলোক বর্মা। CBI-এর প্রধানের পদ থেকে তাঁর অপসারণ নিয়ে কেন্দ্রের শাসক দল তথা প্রশাসনের অতিরিক্ত উৎসাহ প্রদর্শনের দিকেই ঘুরিয়ে তোপ দেগেছেন প্রাক্তন CBI প্রধান অলোক বর্মা। তিনি বলেছেন, “বাইরের কোনও চাপ ছাড়াই CBI-এর চলা উচিত। এই প্রতিষ্ঠানকে ক্রমাগত ধ্বংস করার চেষ্টা হচ্ছে। আমি তা বাঁচানোর চেষ্টা করেছিলাম। তাই মিথ্যে অভিযোগের ভিত্তিতেই আমাকে সরানো হয়েছে”।

আরও পড়ুন- বাংলার রঞ্জি-স্বপ্ন ভাঙতেই বিস্ফোরণ মনোজের

ভবিষ্যতে আরও বড় বিস্ফোরনের ইঙ্গিত দিয়ে বর্মা বলেছেন,”CBI দেশের বড়বড় দুর্নীতির তদন্ত করে। ফলে তার স্বাধীনতা থাকা উচিত। আমি সেটাই বজায় রাখতে চেয়েছিলাম। সেকাজ কারও কারও পছন্দ হয়নি। যে লোকটা আমার বিরোধিতা করে এসেছেন, একমাত্র তার অভিযোগের ভিত্তিতেই আমাকে সরানো হয়েছে।অনেক ঘটনা আছে এর পিছনে। যে কোনও মূল্যে CBI-এর স্বাধীনতা বজায় রাখা উচিত।” সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে CBI প্রধানের পদ ফিরে পাওয়ার 24 ঘন্টার মধ্যেই ফের অপসারিত হওয়ার পর সংবাদসংস্থা PTI-এর সামনে এদিনই প্রথম মুখ খুললেন অলোক বর্মা।

আরও পড়ুন- তৃণমূলের কোন কোন এমপি এখন নজরদারিতে?

প্রসঙ্গত,বৃহস্পতিবার হঠাৎ সরিয়ে দেওয়া হয় CBI প্রধান অলোক বর্মাকে। প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বাধীন একটি কমিটির বৈঠকে ওই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বাধীন একটি কমিটির বৈঠকের পরই সরিয়ে দেওয়া হয় অলোক ভার্মাকে। ওই বৈঠকে ছিলেন লোকসভায় বিরোধী নেতা মল্লিকার্জুন খাড়গে, বিচারপতি এ কে সিক্রি এবং খোদ প্রধানমন্ত্রী। সূত্রের খবর, ওই বৈঠকে অলোক ভার্মার অপসারণ একমাত্র ঠেকানোর চেষ্টা করেছিলেন মল্লিকার্জুন খাড়গে। কিন্তু সফল হননি। তাই সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে CBI-প্রধানের পদ ফিরে পাওয়ার পরেও শেষপর্যন্ত সরেই যেতে হলো অলোক বর্মাকে।

আরও পড়ুন- রাজ্যের সব উপাচার্য, অধ্যক্ষদের সঙ্গে এই প্রথম বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী, আগ্রহ তুঙ্গে