তৃণমূলের কোন কোন এমপি এখন নজরদারিতে?

এসবিবি: সৌমিত্র খাঁ আর অনুপম হাজরার বিদায়ের পর এখন জোর জল্পনা তৃণমূলের অন্দরে, নজরদারিতে কে কে? টিকিট পাবেন না কে কে? এরমধ্যে কজনের নামে ঘুরছে শত্রুপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ রাখার অভিযোগ। আবার কজন বাদ যেতে পারেন শারীরিক কারণ বা নিষ্ক্রিয়তার জন্য।

দলীয় সূত্রে খবর, অপরূপা পোদ্দার, দশরথ তিরকে, তাপস মন্ডল, সুনীল মন্ডল দলের কড়া নজরদারিতে আছেন। মৃগাঙ্ক মাহাতো কিছুদিন আগেও কম আস্থার তালিকায় থাকলেও অভিষেক নিজে বিষয়টা দেখছেন।

কাজ, সময়, সক্রিয়তার প্রশ্নে মুনমুন সেন, সন্ধ্যা রায়কে এবার প্রার্থী নাও করা হতে পারে। বাঁকুড়ায় লড়তে পারেন সমীর চক্রবর্তী।

আরও পড়ুন- রাজ্যের সব উপাচার্য, অধ্যক্ষদের সঙ্গে এই প্রথম বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী, আগ্রহ তুঙ্গে

দেব যদি নিজে আগ্রহ প্রকাশ করেন, তাহলেই টিকিট পাবেন। প্রসেনজিৎকে নামাতে একটি শিবির সক্রিয়।

উমা সোরেন টিকে যেতে পারেন একমাত্র খোদ মমতা নরম হলে।

চৌধুরি মোহন জাটুয়া বয়স ও স্বাস্থ্যের কারণে বাদ।

পার্থপ্রতিম রায়ের বিরুদ্ধে জেলা সভাপতি রবি ঘোষের কড়া অবস্থান। তবে পার্থ অভিষেকের আস্থাভাজন।

সুগত বসুর বদলে এবার শোভন চট্টোপাধ্যায়কে টিকিট দিয়ে সুগতকে রাজ্যসভায় আনার কথা চলছে।

এর মধ্যে সবচেয়ে চাঞ্চল্যকর নাম কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর গরম মেজাজ নিয়ে সবার নালিশ। তবে নেত্রীর দীর্ঘদিনের সাথী একেবারে বাদ যাবেন বলে এখনও মনে হচ্ছে না।

আরও পড়ুন- দেশের স্বার্থেই ‘মুক্তিসূর্য’ মমতার প্রধানমন্ত্রী হওয়া প্রয়োজন”: অভিষেক

দীনেশ ত্রিবেদীর সঙ্গে দিল্লির অনেকের সম্পর্ক ভালো। তবে অন্য রাজ্য থেকে রাজ্যসভার গ্যারান্টি না পেলে তিনি বিকল্প ভাববেন না। অর্জুন সিংয়ের সঙ্গে তাঁর সমস্যা।

সৌগত রায়ের দাদা তথাগত রায়ের কারণে বিজেপি একটা যোগাযোগ রেখে চলছে বলে তাদের সূত্রে দাবি। তবে সংসদে এখনও সরব সৌগত। মমতা বিকল্প ভাবছেন না।

সুব্রত বক্সি শারীরিক কারণে নিজেই না দাঁড়াতে চাইলেও মমতা এবং অভিষেক দুজনেই তাঁর ইচ্ছে নাকচ করে দাঁড়াতে বলছেন।