কর্ণাটকে সঙ্কটের মুখে সরকার

এসবিবি: জোড়াতাপ্পির সরকার কি এবার পড়তে চলেছে? কর্ণাটকে কংগ্রেস-জেডিএস সরকারকে ঘিরে এই প্রশ্নই তীব্র হচ্ছে।ইতিমধ্যেই রাজ্যের দুই নির্দল বিধায়ক শঙ্কর ও নাগেশ রাজ্যপালকে চিঠি লিখে কুমারস্বামী সরকারের উপর থেকে সমর্থন প্রত্যাহারের ঘোষণা করেছেন। জানিয়েছেন তাঁরা সমর্থন করবেন বিজেপিকে।এর মধ্যে মুম্বইয়ের এক হোটেলে 3 কংগ্রেস বিধায়ককে দেখা গিয়েছে এবং সেখানে বিজেপি নেতৃত্বের সঙ্গে তাঁদের বৈঠকের খবরও প্রকাশ্যে এসেছে। অন্যদিকে আবার 2 কংগ্রেস বিধায়কের খোঁজ পাওয়া গিয়েছে দিল্লিতে। কংগ্রেস পরিষদীয় দলও আশঙ্কা প্রকাশ করে বিধানসভার স্পিকারের কাছে হস্তক্ষেপের আর্জি জানিয়েছে। দলের দুই কেন্দ্রীয় নেতা মল্লিকার্জুন খাড়গে ও কে সি ভেনুগোপালের প্রতিক্রিয়া, কুৎসিত ঘোড়া কেনাবেচার চেষ্টা চালাচ্ছে বিজেপি। তবে এই উদ্যোগ সফল হবে না। কংগ্রেস-জেডিএস সরকার অটুট থাকবে। এদিকে দলীয় সংহতি অটুট রাখতে বিজেপির 104 বিধায়ক গুরুগ্রামে এসে রয়েছেন। বিতর্কে ধোঁয়া দিয়ে মহারাষ্ট্রের বিজেপি মন্ত্রী রাম শিন্ডে খোলাখুলি বলেছেন,আর দু-তিনদিনের মধ্যেই বর্তমান সরকার পড়বে । “অপারেশন কমলা” সফল হবে। যদিও বিজেপিকে দুষে এই দাবি উড়িয়েছেন কর্ণাটক প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি দীনেশ গুন্ডুরাও। সবমিলিয়ে প্রতি মুহূর্তে ঘটনার ঘনঘটা কর্ণাটকের রাজনীতিতে।

আরও পড়ুন- রাহুল-হার্দিকদের পাশে শ্রীসন্থ