ফের কাঠগড়ায় সৌম্যজিৎ, এবার অভিযোগ শারীরিক হেনস্থার

এসবিবি, স্পোর্টস: মাস পাঁচেক আগে স্ত্রী তুলিকার সঙ্গে সাতপাকে বাঁধা পড়েছিলেন টেবল টেনিস তারকা সৌম্যজিৎ ঘোষ। মধুচন্দ্রিমা শেষ। আর তার রেশ কাটতে না কাটতেই ফের কাঠগড়ায় বাংলার এই তরুণ তিটি খেলোয়াড়। এবার স্বামীর বিরুদ্ধে শারীরিক নির্যাতনের অভিযোগ তুলিকার।

খবরে খবরে ছয়লাপ। বিয়ের আগে কম জলঘোলা হয়নি। সে সময় বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে সহবাস, গর্ভপাতের অভিযোগ সামনে এনে সৌম্যজিৎকে কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়েছিলেন তুলিকা। প্রথমে তুলিকাকে সৌম্যজিৎ বিয়ে করতে না চাওয়ায় মামলাও দায়ের করা হয়েছিল। অবশেষে গত বছর ৪ অগাস্ট বিয়ে হয় সৌম্য-তুলিকার। তারপর ওঁর উপর থেকে সাসপেনশনও তুলে নেওয়া হয়। তারপর নিয়মিত অনুশীলনও শুরু করেন প্রাক্তন জাতীয় চ্যাম্পিয়ন। তখন মনে করা হয়েছিল, ঠিক ট্র্যাকেই ফিরেছেন সৌম্যজিৎ। কিন্তু বিয়ের ছ’মাস কাটতে না কাটতেই ফের থানায় অভিযোগ দায়ের তুলিকার।

এবার সৌম্যজিতের বিরুদ্ধে অভিযোগ শুধু নয়। বারাসত মহিলা থানায় তুলিকা সৌম্যজিৎ ও তাঁর পরিবারের বিরুদ্ধে বধূ নির্যাতনের মামলা করেছেন। অভিযোগ, “আমাকে বেআইনি কাগজে সই করতে বলা হয়েছিল। আমি রাজি হয়নি। তারপরেও জোর খাটিয়ে আমাকে সই করাতে না পারায় শারীরিক নির্যাতন শুরু হয়। শুধু সৌম্যজিৎ একা নয়, ওর মা, বাবা-সহ পরিবারের অন্যান্য সদস্যরাও আমাকে মারধর করত। এমনকী পণের জন্যও বারবার হুমকি দেওয়া হচ্ছিল।” যদিও এ বিষয়ে সৌম্যজিৎ জানিয়েছেন, “আমি কিছুই বুঝতে পারছি না তুলিকা কেন এমন করল। আদালতেই জবাব দেব।”