প্রাক্তন পাক ক্রিকেটাররা নাকি শৌচাগারেও কাজ করতে ইচ্ছুক!

এসবিবি, স্পোর্টস : তানভীর আহমেদকে মনে পড়ে ?

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট মানচিত্রে পাকিস্তানের জার্সিতে শেষ টেস্টটি খেলেছিলেন পাঁচ বছর আগে। ওয়ান ডে খেলেছিলেন আট বছর আগে। তবে ক্রিকেট বিশেষজ্ঞ হিসেবে পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যমে ওঁকে দেখা যায় মাঝেমধ্যেই। সেই তানভীর আহমেদ যে একেবারে গোলাগুলি চালিয়ে দিলেন!

আরও পড়ুন –একটা করে কিডনিই সম্বল এই 26 জনের

ক্রিকেটখেলিয়ে দেশগুলিতে অনেক ক্রিকেটারই অবসরের পরেও ক্রিকেটের সঙ্গে যুক্ত থাকেন। কেউ কোচিংয়ে। কেউ বা বোর্ড রাজনীতিতে। পাকিস্তানেও এ ছবি অচেনা নয়। যেমন বর্তমান পাক ক্রিকেট বোর্ডের দিকে তাকালে সবার প্রথম যে নামটি ভেসে আসে, তিনি ইনজামাম-উল-হক। বর্তমানে পিসিবি-তে প্রধান নির্বাচক হিসেবে কাজ করছেন ইনজামাম। আর তা যে একেবারেই মেনে নিতে পারছেন না তানভীর, সে বিষয়টি স্পষ্ট। ইনজামামকে উদ্দেশ্য করে তানভীর যে রীতিমতো বোমা ফাটিয়ে দিলেন। বলে ফেললেন, “বর্তমানে প্রাক্তন পাক ক্রিকেটাররা প্রয়োজনে বোর্ডের শৌচালয়ে কাজ করতেও ইচ্ছুক।” তানভীরের এমন মন্তব্যের পরেই ঝড় ওঠে সে দেশের সোশ্যাল মিডিয়ায়।

আরও পড়ুন –লাদাখে ভয়াবহ তুষার ধসে মৃত 1

কিন্তু হঠাৎ কেন এত ক্ষোভ তানভীরের ?

প্রাক্তন এই পাক ক্রিকেটারের চোখে ইনজামামের স্বজনপ্রীতি চরম পর্যায়ে। ঘরোয়া ক্রিকেটে খুব ভালো পারফর্ম করার পরেও তাঁদের বাদ দিয়ে ইনজি নাকি তাঁর ভাইপো ইমাম-উল-হককে বেশি সুযোগ দিচ্ছেন। তানভীরের কথায়, “আমি কখনওই ইনজামামকে কিংবদন্তি বলে মনে করি না। পক্ষপাতদুষ্ট একজন মানুষ ও।”

আরও পড়ুন –ঝাড়খণ্ডে নদীর ধার থেকে উদ্ধার পূর্ণবয়স্ক হাতির দেহ

যদিও এই ইস্যুতেই তানভীর প্রথম বিতর্কে জড়াননি। এর আগে এশিয়া কাপে বিরাট কোহলি না খেলায় তানভীর মন্তব্য করেছিলেন, “ভয় পেয়ে সরে দাঁড়িয়েছে বিরাট।” সেই উক্তির পরে সোশ্যাল মিডিয়ায় কোহলিপ্রেমীরা একহাত নিয়েছিলেন তানভীরকে। নিজেই জানিয়েছেন, তিনি দীর্ঘদিন সোশ্যাল মিডিয়ায় ‘লগইন’ করেননি।

আরও পড়ুন –8 ফেব্রুয়ারি মোদির ব্রিগেড?