একদিনের পিকনিকের একান্ত ঠিকানা

প্রশান্ত দাস

একদিনের পিকনিকে চলুন মুদিয়ালি নেচার পার্ক কলকাতার খুব কাছে এমন একটি সুন্দর পিকনিক স্পট যার কথা অনেকেই জানে না। বেহালা-তারাতলা থেকে মাত্র 3/3.5 কিমি দূরে অবস্থিত এই মুদিয়ালি নেচার পার্ক।কলকাতার এত কাছে অথচ কজন এই পার্কের নাম শুনেছে সন্দেহ আছে।

নব্বই দশকের গোড়ায় মুদিয়ালি নেচার পার্ক তৈরি হয়েছিল।কলকাতার বুকে এই নেচার পার্ক সবুজ আর অপার জলরাশির এক মিলনমেলা। সবুজের গালিচায় মোড়া এই পার্কের অন্যতম বৈশিষ্ট্যই হল এখানে অঢেল জায়গা, ছোট-বড় মিলিয়ে 50টির মত পিকনিক স্পট এখানে রয়েছে।মন চাইলে যেখানে খুশি বসে পড়া যেতেই পারে! পার্কের মধ্যে অনেক বড়-বড় জলাশয়, যেখানে শীতের সময় অসংখ্য পরিযায়ী পাখির দেখা মেলে; অথচ সোশ্যাল মিডিয়া খুললেই দেখা যায় কেউ ছুটে যায় চুপির চর, কেউ বা চিল্কা। বোটিং-এর সুব্যবস্থাও আছে এখানে।স্পিড বোটিং, প্যাডেল বোটিং সবরকমই ব্যবস্থা আছে।পিকনিক স্পটের ভাড়া শুরু 500 টাকা থেকে। আগে থেকে জানিয়ে রাখলে রান্নার সরঞ্জাম ও ডেকরেটর্স সব এখানেই পাওয়া যায়।

এমনি ঘুরতে গেলেও কোন অসুবিধা নেই পার্কের মধ্যে ছোট্ট রেস্তোরাঁও আছে। পিকনিকের আনন্দের সঙ্গে বাড়তি পাওনা মিনি চিড়িয়াখানা, এখনও প্রায় 50টির মত চিতল হরিণ আছে। পার্কের প্রবেশ মূল্য মাথাপিছু 15 টাকা।সকাল 8 টা থেকে বিকেল 4 টে পর্যন্ত খোলা থাকে। পার্কটির তত্ত্বাবধানে রয়েছে মুদিয়ালি ফিসারমেন কো-অপারেটিভ সোসাইটি।শীতের আমেজ গায়ে মেখে কলকাতা থেকে খুব কাছের এই জায়গাটি পিকনিকের জন্য একেবারে পারফেক্ট চয়েস।
কীভাবে যাবেন: শিয়ালদহ থেকে বজবজগামী ট্রেনে বেসব্রিজ় স্টেশনে নামতে হবে। সেখান থেকে হাঁটা পথে এই পার্ক। গাড়িতে এলে তারাতলা থেকে মহেশতলার দিকের রাস্তা ধরে বেসব্রিজ় ক্রস করেই মুদিয়ালি নেচার পার্ক।

যোগাযোগ: ০৩৩-২৪৬৯৫৫৫৫, ০৩৩-২৪৯১৪৭৩৭।