হকিতে তুঘলকি ফরমান কোচের, হারের মাশুল গুণতে হল মাথার চুল দিয়ে

এসবিবি স্পোর্টস: হকিতে তুঘলকি ফরমান! সৌজন্যে বাংলার জুনিয়র হকি দলের কোচ পঙ্কজ আনন্দ। হারের মাশুল গুণতে হল মাথা ন্যাড়া করে।

আরও পড়ুন –অন্তর্বর্তী বাজেট: দেশে ফিরছেন জেটলি!

জব্বলপুরে হকি ইন্ডিয়ার নবম অনূর্ধ্ব-19 জাতীয় হকি প্রতিযোগিতার কোয়ার্টার-ফাইনালে হরিয়ানার কাছে 1-5 গোলে হারে বাংলা। যার মাশুল হিসেবে বাংলার ছেলেদের মাথা ন্যাড়া করার নির্দেশ দেন কোচ পঙ্কজ আনন্দ। খেলা শেষ হওয়ার পর কোচ পঙ্কজ আনন্দ খেলোয়াড়দের বলেন, ‘হারের শাস্তিস্বরূপ তোমাদের ন্যাড়া হতে হবে।’ খেলোয়াড়দের আপত্তিতে কান দেননি কোচ। উল্টে হুমকি দেন, ন্যাড়া না হলে ভবিষ্যতে আর বাংলার হয়ে খেলা হবে না। এর প্রতিবাদ করলেও লাভ হয়নি।

আরও পড়ুন –শাহর হেলিকপ্টার অবতরণের অনুমতি দিলনা জেলা প্রশাসন, ক্ষুব্ধ বিজেপি নেতৃত্ব

জাতীয় অনূর্ধ্ব-19 হকিতে বাংলা থেকে দল পাঠানো হয়েছিল জব্বলপুরে। বাংলা পরপর দু’টো ম্যাচ জেতেও। প্রথমে হারায় 4-0 গোলে গুজরাতকে। অন্ধ্রপ্রদেশকে আরও সহজে, 9-1 গোলে। এরপর কোয়ার্টার ফাইনালে বাংলা মুখোমুখি হয় হরিয়ানার। কিন্তু এই ম্যাচে জিততে না পারায় কপালে জোটে মস্তক মুণ্ডন।

আরও পড়ুন –মালাইকার সঙ্গে সম্পর্ক, কাপুর পরিবারে সম্পর্কের টানাপোড়েন

বাংলা কোচের এই সিদ্ধান্তে স্তম্ভিত গোটা ক্রিড়ামহল। অনেকে আবার কোচ পঙ্কজ আনন্দের শাস্তির দাবিও করেছেন। যদিও এই সমস্ত ঘটনার দায়ভার নেননি কোচ। তাঁর বক্তব্য, ‘আমি ছেলেদের বকাবকি করেছিলাম দ্বিতীয়ার্ধে ভালো খেলার জন্য। কিন্তু ন্যাড়া হতে একেবারেই বলিনি’। যদিও বেঙ্গল হকি অ্যাসোসিয়েশনের সচিব স্বপন বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, ‘ঘটনাটি জেনেছি, অত্যন্ত নিন্দনীয় ঘটনা। অনুসন্ধান করে দেখা হবে দোষী কে। 23 তারিখের পর এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত ঘোষণা করা হবে।’

আরও পড়ুন –উচ্চবর্ণের সংরক্ষণ নিয়ে কেন্দ্রকে নোটিশ মাদ্রাজ হাইকোর্টের