তদন্তে অসহযোগিতা ও বক্তব্যে অসঙ্গতি, শ্রীকান্ত মোহতাকে গ্রেফতার করলো CBI

সবিবি : বৃহস্পতিবার বেলা 3টে নাগাদ শ্রী ভেঙ্কটেশ ফিল্মস (SVF)-এর কর্ণধার শ্রীকান্ত মোহতাকে তাঁর অফিস থেকেই CBI আটক করে। মোহতার কসবার অফিস থেকে তাঁকে আটক করে CGO কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয় আরও জেরা করার জন্য।বেলা 4টে নাগাদ CBI জানায়, জেরায় বক্তব্যে চূড়ান্ত অসঙ্গতি এবং তদন্তে অসহযোগিতার কারনেই ‘আটক’ শ্রীকান্ত মোহতাকে CBI হেফাজতে নিয়েছে। তাঁকে আরও জিজ্ঞাসাবাদ করা প্রয়োজন। শুক্রবার মোহতাকে তোলা হবে ভুবনেশ্বরের CBI কোর্টে। এর আগেও একবার এসভিএফ-এর কর্ণধার শ্রীকান্ত মোহতাকে রোজভ্যালি-কাণ্ডে সল্টলেকের সিজিও কমপ্লেক্সে এক দফা জেরা করেছিলেন CBI গোয়েন্দারা।

আরও পড়ুন- আটক না গ্রেফতার? শ্রীকান্ত মেহতাকে CGO-তে নিয়ে গেল CBI

বৃহস্পতিবার ফের জেরা করতে CBI গোয়েন্দারা পৌঁছে যান কসবায় শ্রীকান্তের অফিসে। CBI সূত্রে খবর, এর আগে দু’বার তাঁকে নোটিস পাঠানো হয়। সেই নোটিস পেয়েও তিনি আসেননি। এক বার আইনজীবীকে দিয়ে কিছু নথি পাঠিয়েছিলেন। সেই নথি পরীক্ষা করার পর ফের যখন শ্রীকান্তকে ডাকা হয়েছিল, তিনি নানা কারণ দেখিয়ে এড়িয়ে যান। সে কারণেই বৃহস্পতিবার দুপুরে CBI তদন্তকারীরাই পৌঁছে যান SVF অফিসে।

আরও পড়ুন- শ্রীকান্ত মেহতার অফিসে CBI হানা, জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাঁকে CGO নেওয়ার সম্ভাবনা।

CBI সূত্রে খবর, রোজভ্যালি কর্ণধার গৌতম কুণ্ডু জেরার সময় শ্রীকান্ত মোহতার বিরুদ্ধে অসংখ্য অভিযোগ করেছিলেন। তাঁর মূল অভিযোগ ছিল, শ্রীকান্ত মোহতার সঙ্গে তাঁর চুক্তি অনুযায়ী SVF প্রযোজিত ছবি দেখানো হবে গৌতমের চ্যানেলে। সেই চুক্তি অনুসারে মোটা টাকাও নিয়েছিলেন শ্রীকান্ত। চুক্তি অনুযায়ী সদ্য মুক্তি প্রাপ্ত এবং বক্স অফিসে হিট ছবি রোজভ্যালির চ্যানেলকে দেওয়ার কথা ছিল শ্রীকান্ত মোহতার। কিন্তু গৌতম CBIকে জানান, শ্রীকান্ত মোহতা পুরনো এবং ফ্লপ ছবি ছাড়া অন্য কোনও ছবি দেখাতে দেননি। এ ভাবে প্রায় 25-30 কোটি টাকা প্রতারণা করেছেন তিনি। সেই অভিযোগের তদন্ত করতেই ডেকে পাঠানো হয়েছিল শ্রীকান্ত মোহতাকে।
আগামীকাল, শুক্রবার  শ্রীকান্ত মোহতাকে ভুবনেশ্বর কোর্টে তোলা হবে।