সিনেমার স্টাইলে প্রতিরোধের চেষ্টা করেও ব্যর্থ হলেন শ্রীকান্ত মোহতা

এসবিবি : রোজভ্যালি-কাণ্ডে বৃহস্পতিবার CBI গ্রেফতার করেছে শ্রীভেঙ্কটেশ ফিল্মসের কর্ণধার শ্রীকান্ত মোহতাকে। গ্রেফতারের নাটকীয় ঘটনা প্রবাহ।

আরও পড়ুন- তদন্তে অসহযোগিতা ও বক্তব্যে অসঙ্গতি, শ্রীকান্ত মোহতাকে গ্রেফতার করলো CBI

● বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে 11 নাগাদ শ্রীভেঙ্কটেশ ফিল্মস (SVF)এর কর্ণধার শ্রীকান্ত মোহতার অফিসে পৌঁছন CBI গোয়েন্দারা।

● কসবার একটি অভিজাত মলের 19 তলায় SVF-এর অফিস।

● CBI-এর দাবি, সেই সময় নিজের দফতরেই ছিলেন শ্রীকান্ত মোহতা।

● SVF অফিসে ঢুকতে গেলে শ্রীকান্তর ব্যক্তিগত দেহরক্ষীরা গোয়েন্দাদের বাধা দেন বলে অভিযোগ।

● শ্রীকান্ত মোহতার ফোন পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে কসবা থানার পুলিশ।

● ফোনে শ্রীকান্ত মোহতা পুলিশকে জানিয়েছিলেন, কয়েক জন অজ্ঞাত পরিচয় ব্যক্তি তাঁর অফিসে জোর করে ঢোকার চেষ্টা করছে। তিনি পুলিশের হস্তক্ষেপ চান।

আরও পড়ুন- আটক না গ্রেফতার? শ্রীকান্ত মেহতাকে CGO-তে নিয়ে গেল CBI

● CBI গোয়েন্দাদের অভিযোগ, কসবা থানার পুলিশ গোয়েন্দাদের পরিচয় জানার পরও তাঁদের কাজে বাধা দেন। এ নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে উত্তপ্ত বাদানুবাদও হয়।

● CBI অফিসাররা তল্লাশি চালানো এবং জেরা করার জন্য আদালতের অনুমতিপত্র পুলিশকে দেখান।

● বেলা 1টা নাগাদ ঘটনাস্থল থেকে চলে যায় পুলিশ।

● এরপর প্রায় দু’ঘন্টা টানা শ্রীকান্ত মোহতাকে তাঁর অফিসেই CBI গোয়েন্দারা জেরা করেন।

● জেরায় ন্যূনতম সহযোগিতাও মোহতা করেননি। কোনও প্রশ্নের উত্তর দেননি।

● এর পরই CBI অফিসাররা উচ্চপদস্থ কর্তাদের ফোন করে পরিস্থিতি জানান। বলেন, হেফাজতে না নিলে মোহতা মুখ খুলবেন না।

● মোহতাকে আটক করে CGO কমপ্লেক্সে নিয়ে গিয়ে জেরা করার বিষয়ে উঁচুতলা থেকে সবুজ সংকেত পান CBI গোয়েন্দারা।

● শ্রীকান্ত মোহতাকে বেলা 3টে নাগাদ তাঁর অফিস থেকেই আটক করে CBI দফতর, CGO কমপ্লেক্সে জেরা করতে নিয়ে যাওয়া হয়।

● CGO কমপ্লেক্সে বসিয়ে শ্রীকান্ত মোহতাকে জেরা করা শুরু করলেও মোহতা কোনও কথা বলতে অস্বীকার করেন।

● এর পরই তদন্তে অসহযোগিতা এবং বক্তব্যে অসঙ্গতির কারনে এদিন বেলা 4টে নাগাদ শ্রীভেঙ্কটেশ ফিল্মস (SVF)এর কর্ণধার শ্রীকান্ত মোহতাকে CBI গ্রেফতার করে।

● মোহতার বিরুদ্ধে অভিযোগ এনেছেন রোজ ভ্যালির কর্ণধার গৌতম কুণ্ডু নিজেই।

আরও পড়ুন- শ্রীকান্ত মেহতার অফিসে CBI হানা, জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাঁকে CGO নেওয়ার সম্ভাবনা।

● গৌতম কুণ্ডুর অভিযোগ, শ্রীকান্ত মোহতার সঙ্গে তাঁর চুক্তি অনুযায়ী SVFক প্রযোজিত ছবি দেখানো হবে গৌতমের চ্যানেলে। সেই চুক্তি অনুসারে মোটা টাকাও নিয়েছিলেন শ্রীকান্ত। চুক্তি অনুযায়ী সদ্য মুক্তি প্রাপ্ত এবং বক্স অফিসে হিট ছবি রোজভ্যালির চ্যানেলকে দেওয়ার কথা ছিল শ্রীকান্ত মোহতার। কিন্তু গৌতম CBIকে জানান, শ্রীকান্ত মোহতা পুরনো এবং ফ্লপ ছবি ছাড়া অন্য কোনও ছবি দেখাতে দেননি। এ ভাবে প্রায় 25-30 কোটি টাকা প্রতারণা করেছেন তিনি।

● এই অভিযোগের তদন্ত করতেই ডেকে পাঠানো হয়েছিল শ্রীকান্ত মোহতাকে। মোহতা সহযোগিতা করেননি।

● তদন্তে অসহযোগিতা করার ফলশ্রুতিতেই শ্রীকান্ত মোহতাকে যেতে হলো CBI হেফাজতে।

● শুক্রবার মোহতাকে তোলা হবে ভুবনেশ্বরের খুর্দা রোড CBI কোর্টে।

● CBI আদালতে জামিনের বিরোধিতা করে মোহতাকে জেরা করার জন্য হেফাজতে নেওয়ার আর্জি জানাবে।