সমাবেশ বড়ই, কিন্তু তারপর? বামশিবিরে প্রশ্ন থাকলই

এসবিবি: রবিবার ব্রিগেডের সমাবেশ হয়েছে যথেষ্ট বড়। এটা সিপিআইএম এবং বামপন্থীদের পক্ষে সন্তোষজনক। কিন্তু এর পর কী? এনিয়ে জল্পনা থাকলই।

1) বড় সভা বা মিছিল কেন্দ্রীয়ভাবে হলেও যারা এলেন, তারা নিজের এলাকায় বা নিজের বুথে কী করবেন?

2) এককভাবে বামফ্রন্ট পারবে না, সভাতেই স্পষ্ট। কিন্তু বৃহত্তর বাম ঐক্যের চেহারাটিও চূড়ান্ত নয়। তাহলে ভোটের লড়াই কি সেই একাই?

আরও পড়ুন- হার না মানা জেদ দেখিয়ে নজর কাড়লেন বুদ্ধ

3) কংগ্রেস নিয়ে নীতি কি বামেদের? রাজ্যে আসন সমঝোতা হবে? বস্তুত কংগ্রেস সম্পর্কে একটি শব্দও উচ্চারণ হয় নি এদিনের ব্রিগেডে।

4)  তাহলে নতুন কী পেল বাম শিবির? না , ভাষণে সেই মোদি, মমতাকে দ্বিমুখী আক্রমণ। তার বেশি আর একটিও নতুন কিছু নয়। নেতাদের ভাষণ রুটিন। সমাবেশের বড় চেহারাটাই একমাত্র প্রাপ্তি।

5) সেরা উপস্থিতি: বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য। অসুস্থ। ধুলোয় সামলাতে পারবেন না। শুধু উপস্থিত থাকার জন্য এসে গাড়িতেই বসেছিলেন। তবু এসেছেন।

আরও পড়ুন- আমাদের ব্রিগেড তৃণমূলের ডবল: সূর্যকান্ত

6) সেরা চমক: দেবলীনা হেমব্রম। বাংলা, সাঁওতালি মিলিয়ে সুপারহিট আক্রমণাত্মক ভাষণ।

7) সেরা বক্তা: সিপিআইএমএল লিবারেশনের সাধারণ সম্পাদক দীপঙ্কর ভট্টাচার্য। বামফ্রন্টের গন্ডির বাইরের অবস্থান থেকে অপূর্ব মূল্যায়ণভিত্তিক ভাষণ।

8) সেরা মিস: কানহাইয়া কুমার আসতে পারলেন না অসুস্থতার জন্য।