বিধায়ক খুনে যারা জড়িত তাদের কঠোর শাস্তি হবে: পার্থ চট্টোপাধ্যায়

এসবিবি: নদীয়ার বিধায়ক খুনের ঘটনাকে মোটেই হালকাভাবে নিচ্ছে না তৃণমূল নেতৃত্ব। রবিবার শক্তিনগর হাসপাতালে তৃণমূল মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় স্পষ্ট জানিয়ে দেন, যত বড় নেতাই হোক না কেন এই খুনের সঙ্গে যারা জড়িত তাদের কঠোর শাস্তি হবে।বিধায়ক সত্যজিৎ বিশ্বাসের মৃত্যুতে তিনি মর্মাহত বলে জানান।

আরও পড়ুন- সরস্বতী পুজোয় প্রণাম করে CBI দফতরে কুণাল

এদিকে, এই ঘটনার পেছনে গভীর রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র রয়েছে বলে মনে করছে তৃণমূল। পার্থ চট্টোপাধ্যায় সরাসরি বিজেপির দিকেই আঙুল তুলেছেন। তিনি বলেন, ‘মতুয়া সংগঠন করতো সত্যজিত্। যতেষ্ট জনপ্রিয় ছিল। জেলার দাপুটে নেতা হিসেবে ওর পরিচিতি ছিল। এটি একটি সংঘটিত খুন। এর পেছনে রয়েছে বিজেপিই। সত্যজিতকে সরিয়ে ফেলাই ছিল টার্গেট। সীমান্ত এলাকায় দুষ্কৃতী ঢোকাচ্ছে বিজেপি। মতুয়াদের সংগঠক এই যুব নেতাকে তাই খুন হতে হল।

আরও পড়ুন- ছক কষেই কি বিধায়ক- খুন? এমনই সন্দেহ CID-র

অন্যদিকে তৃণমূল বিধায়ক খুনে বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের নামে এফআইআর দায়ের হয়েছে। এ প্রসঙ্গে কোনও মন্তব্য করতে রাজি হননি।মহাসচিব বলেন, পুরো বিষয়টি যেহেতু প্রশাসন দেখছে তাই আমি কোন মন্তব্য করব না। এমনকি সহকর্মীদের বলব কোনওরকম প্ররোচনায় পা না দিতে। মানুষ এবং উন্নয়ন, এটাই আমাদের দলের শেষ কথা।

আরও পড়ুন- পথ দুর্ঘটনায় জখম বাবুন বন্দ্যোপাধ্যায়

তিনি বলেন, “এর আগেও অনেক কর্মীদের হারিয়েছি। অনেক রক্তের বিনিময়ে আমরা পশ্চিমবঙ্গে এসেছি। তারপর দীর্ঘদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের চেষ্টায় রক্তস্নাত বাংলা শান্তি, সংহতি ও উন্নতির দিকে এগিয়েছে। এই ঘটনায় দলনেত্রীও শোকস্তব্ধ। সত্য আজ নেই। কিন্তু ও আমাদের মধ্যে বেঁচে থাকবে।”