বারাকপুরের জল মাপতে আলিমুদ্দিনের কৌশলি পদক্ষেপ

এসবিবি : উত্তর 24 পরগনার মোট পাঁচ আসনের চারটিতে প্রার্থীর নাম ঘোষণা করলেও শুক্রবার জানানো হয়নি বারাকপুর আসনের প্রার্থীর নাম। ফ্রন্টের তরফে জানানো হয়েছে এই জেলার বনগাঁ আসনে সিপিএমের অলোকেশ দাস, বসিরহাট কেন্দ্রে সিপিআইয়ের ডঃ পল্লব সেনগুপ্ত, বারাসতে ফরওয়ার্ড ব্লকের হরিপদ বিশ্বাস এবং দমদমে সিপিএমের নেপালদেব ভট্টাচার্যকে প্রার্থী করা হয়েছে। চার আসনে প্রার্থীর নাম ঘোষণা করা হলেও সিপিএমের ভাগের কেন্দ্র বারাকপুরের প্রার্থী নাম এখনও চূড়ান্ত হয়নি, এমন ভাবার কোনও কারনই নেই। আসলে সিপিএম এই কেন্দ্রের জল মাপতে চাইছে।
তৃণমূল বিধায়ক অর্জুন সিং বৃহস্পতিবার বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। শোনা যাচ্ছে, এই কেন্দ্রে তৃণমূল প্রার্থী দীনেশ ত্রিবেদির বিরুদ্ধে পদ্ম-প্রার্থী হতে পারেন অর্জুন সিং। তেমন হলে এই কেন্দ্রে অনেকটাই সুবিধাজনক অবস্থায় চলে যাবে বামেরা। দীনেশ ত্রিবেদি এবং অর্জুন সিং-এর ভোট কাটাকুটিতে শিকে ছিঁড়তে পারে সিপিএম প্রার্থীর। গত 2004 সালের লোকসভা ভোটে কলকাতা উত্তর-পশ্চিম কেন্দ্রে ঠিক এমন এক ফাঁক দিয়েই সাংসদ হয়েছিলেন সিপিএমের সুধাংশু শীল। সেবার এই কেন্দ্রে তৃণমূল প্রার্থী সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে মোমবাতি প্রতীকে নির্দল প্রার্থী ছিলেন সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়। সুব্রত-সুদীপের ভোট কাটাকাটিতে সামান্য ব্যবধানে জিতেছিলেন সিপিএমের সুধাংশু শীল। সেই ঘটনার পুনরাবৃত্তির সম্ভাবনা পুরোমাত্রায় এবার বারাকপুরে। সেই কারনেই প্রাথমিকভাবে সিপিএম প্রার্থী হিসাবে গার্গী চট্টোপাধ্যায়ের নাম চূড়ান্ত করলেও এদিন তা ঘোষণা করেননি বিমান বসু। সিপিএম সম্ভবত দেখে নিতে চাইছে, বারাকপুরে বিজেপি অর্জুন সিংকেই প্রার্থী করে কিনা। অর্জুন সিং প্রার্থী হলে গার্গীর পরিবর্তে অন্য হেভিওয়েটকে প্রার্থী করবে সিপিএম। বারাকপুরের জল মাপতেই আলিমুদ্দিনের কৌশলি পদক্ষেপ।

আরও পড়ুন –ফুয়াদ হালিমকে প্রার্থী করে ফ্রন্টের বার্তা, সিরিয়াস লড়াই হবে ডায়মণ্ড হারবারে