ভোট প্রচারে হাতিয়ার এবার কংগ্রেসের এই স্লোগান

এসবিবি : লোকসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে জোরকদমে চলছে দেওয়াল লিখনের কাজ। আর কখনও কখনও দেওয়াল লিখনকে ঘিরে তৈরি হচ্ছে বিতর্ক। যেরকমটা হয়েছে হাওড়া পৌরনিগমের 39 নম্বর ওয়ার্ডে। এখানকার একটি সাদা দেওয়ালের উপর গেরুয়া রং-এ লেখা হয়েছে কংগ্রেসের সেই চেনা স্লোগান “চৌকিদার চোর হ্যায়।” আর তারপর থেকেই একে অপরের বিরুদ্ধে দেওয়াল দখলের অভিযোগ এনেছে পদ্মফুল শিবির ও ঘাসফুল শিবির। দুপক্ষেরই অভিযোগ, ” কার দেওয়াল কে লিখেছে।”  ভোটের মুখে তাই ওই এলাকায় রাজনৈতিক চাপান উতোর তুঙ্গে।

আরও পড়ুন –রাজনৈতিক প্রচারে নেই ইসকন

এবিষয়ে স্থানীয় বিজেপি সভাপতি বদ্রিনারায়ণ সিংহের অভিযোগ, ” লোকসভা নির্বাচনের আবহে বিজেপির ভাবমূর্তি নষ্ট করতে তৃণমূলের লোকজনই এই কাজ করেছে।” যদিও অভিযোগ অস্বীকার করেছে ঘাসফুল শিবির।

আরও পড়ুন –এলাকায় লিড হলেই পুরপিতার রমরমা, তৃণমূলে চোরাস্রোত কোন্ পথে?

প্রসঙ্গত, রাফাল দুর্নীতির কথা প্রকাশ্যে আসতেই কংগ্রেস সভাপতির মুখে শোনা গিয়েছিল একটি স্লোগান। নরেন্দ্র মোদিকে কটাক্ষ করে এখনও তাঁর মুখে ওই একটাই স্লোগান শোনা যাচ্ছে, “চৌকিদার চোর হ্যায়”। আর সেই স্লোগানকে হাতিয়ার করা হল ভোট প্রচারে। তবে, শুধু স্লোগানই নয়। স্লোগানের পাশে আঁকা হয়েছে একটি পদ্মফুলও।
উল্লেখ্য, গত রবিবার দেওয়াল দখলকে ঘিরে ধুন্ধুমার কাণ্ড বেধেছিল বর্ধমান-দুর্গাপুর লোকসভা কেন্দ্রে। বিজেপি ও তৃণমূল দুদলেরই অভিযোগ ছিল, ” আগে আমরা দেওয়াল লিখনের কাজ করেছি।” তা বাদে ওই একই দেওয়ালে ভারতীয় জনতা পার্টির সঙ্গে লেখা হয়েছে তৃণমূল প্রার্থী ডা. মমতাজ সংঘমিতার নামও। কে প্রথম দেওয়াল লিখেছে তা খতিয়ে দেখতে দিয়ে নাকাল হতে হচ্ছে স্থানীয় প্রশাসনকে।

আরও পড়ুন –রাজনীতি ছাড়ার বাজি রাখলেন অনুব্রত