‘চেক নিন, মিমিকে ভোট দিন’- প্রকাশ্যে তৃণমূল পঞ্চায়েতের প্রধানের চাঞ্চল্যকর ভিডিও

 এসবিবি: সরকারি প্রকল্পের চেক বিলি ঘিরে দানা বেঁধেছে বিতর্ক। সোমবার দুপুরে ভাঙড়ের ভোগালি  2 গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান মোদাসের হোসেনকে সরকারি প্রকল্পের চেক বিলি করতে দেখা যায়। সঙ্গে হুমকি দিতে দেখা যায় পঞ্চায়েত প্রধানকে। যাদবপুর লোকসভা কেন্দ্রে বিজেপি প্রার্থী অনুপম হাজরা পঞ্চায়েত প্রধানের বক্তব্য ভিডিও আকারে নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে পোস্ট করেছেন।

আরও পড়ুনগুরাপে প্রচারে বেরিয়ে জয়ের বিষয়ে আত্মবিশ্বাসী লকেট

এই ভিডিও ভাইরাল হতেই হইচই পড়ে গিয়েছে। পঞ্চায়েত প্রধান মোদাসের হোসেনের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে, ‘চেক বিলির সময় উপভোক্তাদের হুমকি দিতে দেখা যায় মোদাসেরকে।’ অভিযোগ পঞ্চায়েত প্রধান চেক বিলি করার সময়ে যাদবপুর লোকসভা কেন্দ্রে তৃণমূল প্রার্থী মিমি চক্রবর্তীকে ভোট দেওয়ার নির্দেশ দিতে দেখা যায়।’ এখানেই শেষ নয়। ওই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে মোদাসের হোসেন চেক বিলির সময়ে তিনি কৃষকদের ভোটার পরিচয়পত্রের ফটোকপি রেখে দিতে দেখা যায়।

আরও পড়ুন-সীমান্তে ফের সংঘর্ষ বিরতি চুক্তি লঙ্ঘন পাকিস্তানের, পরিণতি মর্মান্তিক

ভাঙড়ের এই পঞ্চায়েত প্রধানের বিতর্কিত ভিডিওতে এও দেখা গিয়েছে, ‘ভোটের দিন যাতে বুথে ঘাসফুল এজেন্ট ছাড়া অন্য কোন বিরোধী দলের এজেন্ট বসতে না পারে তার জন্যেও হুমকি ঝড়ে পড়েছে মোদাসের হোসেনের মুখে।’

সোশ্যাল মিডিয়াতে এই ভিডিও ভাইরাল হতেই রাজ্যের বিরোধী দলগুলো প্রতিবাদে সরব হয়ে উঠেছে। যাদবপুর কেন্দ্রে গেরুয়া শিবিরের প্রার্থী অনুপম হাজরা বলেছেন, ‘রাজ্য জুড়ে তৃণমূল কংগ্রেস এইভাবেই হুমকি দিয়ে চলেছে।’ বিজেপি প্রার্থী প্রশ্ন ছুঁড়েছেন, ‘কিভাবে সরকারি প্রকল্পের টাকা নির্বাচনের আগে বিলি করা হচ্ছে?’ অনুপম হাজরার অভিযোগ, ‘এটা অত্যন্ত দুর্ভাগ্যের বিষয়। রাজ্য জুড়ে এত উন্নয়ন হলে সরকারি প্রকল্পের টাকা দিয়ে ভোট চাইতে হচ্ছে?’ বিজেপি প্রার্থীর সাফ কথা, ‘তৃণমূল বুঝে গেছে কেউ তাদের ভোট দেবে না তাই এরকম করে চলেছে।’ গেরুয়া প্রার্থী অনুপম জানিয়েছেন, ‘এই বিষয়ে কমিশনে অভিযোগ জানানো হবে।’

আরও পড়ুন-মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিকের বিরুদ্ধে অভিযোগ মুকুল রায়ের

ওদিকে সিপিএম প্রার্থী বিকাশরজ্ঞন ভট্টাচার্য এই প্রসঙ্গে বলেছেন, ‘কিভাবে ভোট ঘোষণা হওয়ার পর চেক বিলি করা হচ্ছে।’ সিপিএম প্রার্থী জানিয়েছেন, ‘এই বিষয় নিয়ে কমিশনে অভিযোগ জানানো হবে।’ যদিও এই ভিডিওটির সত্যতা যাচাই করেনি সংবাদ বিশ্ববাংলা।