দ্বিতীয় দফায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা বাড়ছে, মোতায়েন করা হবে মোট 123 কোম্পানি বাহিনী

এসএসবি: প্রথম দফার থেকে দ্বিতীয় দফায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা আঁটসাট করতে বাড়ছে কেন্দ্রীয় বাহিনীর সংখ্যা। দ্বিতীয় দফার ভোটে ব্যবহার করা হবে 100 কোম্পানির বেশি আধাসেনা। এমনটাই জানা গিয়েছে কমিশন সূত্রে। প্রসঙ্গত, 18 এপ্রিল বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় দফায় ভোট। ওই দিন পাহাড়ে দার্জিলিং লোকসভা কেন্দ্রে ভোট। সেইসঙ্গে সমতলে জলপাইগুড়ি ও রায়গঞ্জে ভোট।

আরও পড়ুন- বিমানবন্দরে সোনা কাণ্ডে রাজ্য সরকারকে নোটিশ পাঠাল সুপ্রিম কোর্ট

উল্লেখ্য, দার্জিলিং লোকসভা কেন্দ্রটি নিয়ে যুযুধান তৃণমূল-বিজেপি। সেইসঙ্গে 2017-য় মোর্চা বিক্ষোভে উত্তপ্ত দার্জিলিংয়ের ছবি এখনও টাটকা। গোর্খাল্যান্ড ইস্যুতে মোর্চার বিক্ষোভে আগুন জ্বলেছিল পাহাড়ে। মোর্চার নেতৃত্বে হাতবদল ঘটেছে। কিন্তু, লোকসভা ভোটের ঢাকে কাঠি পড়তেই ফের গোর্খা ভাবাবেগকে উসকে দেওয়ার চেষ্টা শুরু করে গুরুংপন্থী মোর্চা সদস্যরা। বৃহস্পতিবার কালিম্পংয়ের সভা থেকে পৃথক গোর্খাল্যান্ডের পালে হাওয়া দেন বিজেপি সভাপতি অমিত শাহও।

আরও পড়ুন- নির্বাচনে সেনার নাম ব্যবহার নয়, রাষ্ট্রপতির দ্বারস্থ 156 প্রাক্তন সেনা

এই পরিস্থিতিতে ভোটে পাহাড়ে নিরাপত্তা ব্যবস্থা আঁটসাট করতে তত্পর কমিশন। প্রথম দফার ভোটে ব্যবহার করা হয়েছে 83 কোম্পানি বাহিনী। দ্বিতীয় দফার ভোটের আগে রাজ্য আসছে আরও 40 কোম্পানি আধাসেনা। দ্বিতীয় দফার ভোটের আগেই রাজ্যে মোতায়েন করা হবে মোট 123 কোম্পানি বাহিনী। উত্তর-পূর্বের নাগাল্যান্ড, সিকিম, ত্রিপুরা এবং মেঘালয় থেকে বাহিনী আনার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এরমধ্যে স্ট্রং রুম, ভোটের পরবর্তী হিংসার জন্য কিছু বাহিনী থাকবে কোচবিহার ও আলিপুরদুয়ারে। বাকি বাহিনী ব্যবহার করা হবে দ্বিতীয় দফায়।

তিন কেন্দ্র মিলিয়ে দ্বিতীয় দফার ভোটে মোট বুথ সংখ্যা 5390টি। দু-একদিনের মধ্যেই অতিরিক্ত বাহিনী চলে আসবে। শুরু হয়ে যাবে টহল।জানা গিয়েছে, বিরোধীদের দাবি মেনেই বাড়ানো হচ্ছে বাহিনী।