কয়েক কোটি কালো টাকা উদ্ধার, এই কেন্দ্রে ভোট বাতিলের সিদ্ধান্ত কমিশনের

এসবিবি : কোটি কোটি টাকা উদ্ধার হয়েছে। সবই কালো। এক ডিএমকের নেতার গুদাম থেকে 11 কোটি 53 লাখ টাকা উদ্ধার করে আয়কর দফতর। তার দু’দিন আগে ডিএমকে প্রার্থীর অফিস থেকেও কয়েক কোটি টাকা উদ্ধার করা হয়েছিল। সবই বেআইনি। আয়কর বিভাগ থেকে পর পর এই রিপোর্ট পাওয়ার পরই অভিযোগ দায়ের করা হয়। এবার আরও কঠোর সিদ্ধান্ত নিয়ে তামিলনাড়ুর ভেলোরে ভোট বাতিলের সিদ্ধান্ত নিয়েছে নির্বাচন কমিশন। ভোট বাতিলের সিদ্ধান্তে সিলমোহর দিতে রিপোর্ট পাঠানো হয়েছে রাষ্ট্রপতির কাছে। রাষ্ট্রপতি সবুজ সংকেত দিলেই বাতিল হয়ে যাবে ভেলোর লোকসভা কেন্দ্রের ভোট।

আরও পড়ুন-মমতার বায়োপিক নিয়ে সরব বিরোধীরা, প্রেক্ষাগৃহে আসার আগেই বিতর্কে ‘বাঘিনী’

ভেলোর কেন্দ্রের ডিএমকে প্রার্থী কাথির আনন্দের কার্যালয় থেকে কয়েক কোটি টাকা উদ্ধার হয়। প্রার্থীর বাবা দুরাই মুরুগানের বাড়িতেও তল্লাশি চালায় আয়কর দপ্তর। সেখান থেকে উদ্ধার হয় বিপুল টাকা।
দু’দিন পর ওই জেলারই এক ডিএমকের নেতার গুদাম থেকে 11 কোটি 53 লাখ টাকা উদ্ধার করে আয়কর দপ্তর। ওই প্রার্থী এবং দলের দুই সদস্যের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের হয়েছে। প্রার্থীর বিরুদ্ধে জনপ্রতিনিধিত্ব আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। মনোনয়ন পত্র জমা দেওয়ার সময় এই বিপুল পরিমাণ টাকার ব্যাপারে কোনও তথ্য দেননি তিনি। কমিশন জানিয়েছে, মনোনয়ন পত্রের সঙ্গে দেওয়া নির্বাচনী হলফনামায় ভুল তথ্য দেওয়া হয়েছে। আর তারপরই এই লোকসভা কেন্দ্রের ভোট বাতিলের প্রক্রিয়া শুরু কলে কমিশন। মঙ্গলবারই সিদ্ধান্ত নেয় কমিশন। এদিনই রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের কাছে এই সংক্রান্ত সুপারিশ পাঠিয়েছে নির্বাচন কমিশন। যে কোনও মুহূতে রাষ্ট্রপতির অনুমোদন হাতে আসবে বলেই মনে করছে নির্বাচন কমিশন।
ভোট বাতিলের সিদ্ধান্ত রাষ্ট্রপতি অনুমোদন করলে তা হবে দেশের লোকসভা ভোটের ইতিহাসে বেনজির কলঙ্কজনক ঘটনা।

আরও পড়ুন-পয়লা বৈশাখে নিজের গ্রামের বাড়ির কালী মন্দিরে পুজো দিলেন মিমি