কেন্দ্রীয় বাহিনীকে ঝাঁটা মারার নিদান তৃণমূল মন্ত্রীর! রাজনৈতিক মহলে সমালোচনার ঝড়

এসবিবি: ফের কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে বিতর্কিত ও উস্কানিমূলক মন্তব্য করে কাঠগড়ায় রাজ্যের মন্ত্রী৷ কেন্দ্রীয় বাহিনীকে ঝাঁটা হাতে তাড়া করার নির্দেশ দিলেন রাজ্যের মন্ত্রী রত্না ঘোষ কর৷ যুদ্ধ জিততে হলে সবকিছুই করা যায়, যুদ্ধ জয়ে অন্যায় বলেও কিছু নেই, কর্মীসভায় এমনটাই জানান রত্নাদেবী।

মন্ত্রীর এই উস্কানিমূলক বক্তব্যের পরই বিজেপি ওয়েস্ট বেঙ্গল ট্যুইটার হ্যান্ডেলে একটি ভিডিও প্রকাশ করা হয়৷ সেখানেই রত্নাদেবীকে এই উস্কানিমূলক মন্তব্য করতে দেখা গিয়েছে৷ ভোটের নিরাপত্তার দায়িত্বে আসা জওয়ানদের নিয়ে রাজ্যের মন্ত্রীর এই মন্তব্য ঘিরে রাজনৈতিক মহলে সমালোচনার ঝড় উঠেছে।

আরও পড়ুন –তৃণমূলের পাল্লায় পড়ে ‘ব্ল্যাকলিস্টেড’ হয়ে বাংলাদেশ ফিরতে হল ফিরদৌসকে, লাভ হল কি?

নদিয়ার রানাঘাটের তৃণমূল প্রার্থী রূপালী বিশ্বাসের সমর্থনে কর্মীসভা ছিল তৃণমূলের। সেখানেই বক্তব্য রাখছিলেন রাজ্যের মন্ত্রী রত্না ঘোষ কর৷ কর্মীদের চাঙ্গা করতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘‘যুদ্ধে জিততে গেলে ন্যায় অন্যায়, গণতন্ত্র-ফনতন্ত্র বলে কিছু নেই৷ যে পদ্ধতি যেখানে দরকার সেখানে সেটা প্রয়োগ করবেন৷’’

এখানেই থেমে থাকেনি তিনি। সুর ছড়িয়ে আরও বলেন, ‘‘2016 সালে কেন্দ্রীয় বাহিনী থাকা সত্ত্বেও আপনারা ভোট করে দেখিয়ে দিয়েছেন৷ তাড়া খেয়েছেন। রক্তাক্ত হয়েছেন৷ এবার তাই মেয়েদের বলব ঝাঁটা হাতে তৈরি থাকুন। প্রয়োজনে কেন্দ্রীয় বাহিনীকে তাড়া করুন৷’’

মন্ত্রীর এই বক্তব্য নিয়ে ইতিমধ্যেই সরব হয়েছে বিরোধীরা। বিজেপির পক্ষ থেকে রত্নাদেবীর কেন্দ্রীয় বাহিনীকে নিয়ে উস্কানিমূলক বক্তব্যের ভিডিও ফুটেজ কমিশনের কাছে জমা দিয়েছে রাজ্য বিজেপি। তা খতিয়ে দেখে নদিয়ার জেলা শাসককের কাছে রিপোর্ট তলব করেছে কমিশন। সবমিলিয়ে বড়সড় সমস্যায় পড়তে পারেন চাকদার বিধায়ক তথা রাজ্যের মন্ত্রী রত্না ঘোষ কর।

আরও পড়ুন –কেন্দ্রের কড়া নির্দেশের পর বাংলাদেশ ফিরে গেছেন অভিনেতা ফিরদৌস