শ্রীলঙ্কায় সাময়িকভাবে নিষিদ্ধ ফেসবুক ও হোয়াটসঅ্যাপ-সহ অন্যান্য সোশ্যাল সাইট 

 এসবিবি:   শ্রীলঙ্কায় সাময়িকভাবে নিষিদ্ধ হল ফেসবুক ও হোয়াটসঅ্যাপ-সহ অন্যান্য সোশ্যাল সাইট। ইস্টারের সময় গির্জায় আইএস হামলার পর থেকে পালটা জবাবে দেশজুড়ে মসজিদ ও মুসলিম ব্যবসায়ীদের উপর হামলার জেরে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে শ্রীলঙ্কা সরকার।

জানা গিয়েছে, রবিবার ফেসবুকের একটি পোস্টের জেরে একটি মুসলিম ব্যবসায়ীর দোকানে হামলা চালায় দুষ্কৃতীরা। প্রায় ডজন খানেক মানুষ মসজিদ লক্ষ্য করেও পাথর ছুঁড়তে থাকে। ঘটনার জেরে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে এলাকা। ঘটনাস্থলে যায় পুলিশ। হামলাকারীদের থেকেই জানা যায় একটি ফেসবুক পোস্টের কারণেই ছড়িয়েছে উত্তেজনা। শুরু হয় পোস্টের লেখকের অনুসন্ধান। তাকে গ্রেফতারও করে পুলিশ। ওই ব্যক্তির নাম আবদুল হামিদ মহম্মদ হাসমর। বয়স 38 বছর। রবিবার এই ঘটনার পর সোমবার ফের কুরুনেগালা জেলায় একদল দুষ্কৃতী মুসলিম ব্যবসায়ীর দোকানের উপর হামলা চালায় বলে জানিয়েছে পুলিশ। শ্রীলঙ্কা সেনার মুখপাত্র সুমিত আতাপাত্তু জানিয়েছেন, এলাকায় এখন কড়া নজরদারি চলছে। রাতেও মোতায়েন থাকছে কার্ফু।

আরও পড়ুন- কর্মী সমর্থকদের বাড়তি অক্সিজেন দিতে মঙ্গলবার কলকাতায় অমিতের রোড শো

ইস্টারের হামলার পর শ্রীলঙ্কা সরকার এখনও অভিযু্ক্তদের সকলের নাগাল পায়নি৷ অধরা যারা, তারাই অতর্কিতে হামলা চালাচ্ছে৷ এসবের জেরে সোমবার থেকে শ্রীলঙ্কার সমস্ত সোশ্যাল মিডিয়াগুলি অস্থায়ীভাবে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। শ্রীলঙ্কা সরকারের তরফ থেকে এই খবর জানানো হয়েছে। ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপ ও টুইটার ছাড়াও ভাইবার, আইএমও, স্ন্যাপচ্যাট, ইনস্টাগ্রাম ও ইউটিউবও বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।