CRPF ছিলো বলে বাংলা থেকে বেঁচে ফিরেছি: অমিত শাহ

এসবিবি : “কলেজের ভিতরে ছিলেন তৃণমূলকর্মীরা’। মিথ্যা সহানুভূতি আদায় করতে মূর্তি ভেঙেছে তৃণমূলই।” বিদ্যাসাগর কলেজে তাণ্ডবের ঘটনায় এবার তৃণমূলকে পাল্টা তোপ বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহের।
এরপরই তাঁর বিস্ফোরক মন্তব্য, “CRPF না থাকলে বেঁচে ফিরতেন না বাংলা থেকে”। পাশাপাশি নির্বাচন কমিশনের ভূমিকা নিয়েও শাহ প্রশ্ন তুলেছেন ৷

আরও পড়ুন –বাংলার হিংসা নিয়ে নিরপেক্ষ বুদ্ধিজীবীরা এখন চুপ কেন? প্রশ্ন মোদির

বুধবার সাংবাদিক বৈঠকে শাহ বলেন,” 6 দফা শেষ হয়েছে। 6 দফায় বাংলা ছাড়া আর কোনও রাজ্যে হিংসা বা_ অশান্তি হয়নি। আমি মমতাজিকে বলতে চাইছি, আপনি মাত্র 42 আসনে নির্বাচন লড়ছেন। কিন্তু বিজেপি গোটা দেশের সব রাজ্যে নির্বাচন লড়ছে ৷ কিন্তু বাংলা ছাড়া আর কোনও রাজ্যে এতো হিংসা, অশান্তি হয়নি। বাংলায় প্রত্যেক দফায় হিংসার ঘটনা ঘটেছে ৷ এর মানে একটাই যে তৃণমূলই হিংসা ছড়াচ্ছে”।
শাহ এদিন দাবি করেছেন, “রোড-শো শুরু হওয়ার আগেই ওখানকার পোস্টার ছিঁড়ে দেওয়া হয়েছিল ৷ রোড-শোতে প্রচুর মানুষ ছিলেন ৷ প্রায় আড়াই ঘণ্টা ধরে শান্তিপূর্ণ ভাবে রোড- শো চলে ৷ তিনবার হামলা চালানো হয় রোড-শো’-র ওপর ৷ এবং তৃতীয় বারেই ভাঙচুর, আগুন লাগানোর ঘটনা ঘটেছে। ভোটব্যাঙ্কের জন্য মণীষীদের মূর্তি ভাঙচুর করার একটাই অর্থ, তৃণমূলের সময় শেষ হয়ে এসেছে”।

আরও পড়ুন –বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙা নিয়ে ক্ষোভে ফুঁসছে ঘাটাল