ঘরে ঘরে HIV প্রকোপ! পাকিস্তানের সিন্ধ প্রদেশে মারণ আতঙ্ক

এসবিবি: HIV আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে লাফিয়ে লাফিয়ে। পাকিস্তানের সিন্ধ প্রদেশে ভয়াবহ আকার নিচ্ছে HIV প্রকোপ। কার্যত ঘরে ঘরে ছড়িয়ে পড়েছে এই মারণব্যাধি। ঘরের সন্তানদের নিয়ে অবিভাবকদের লম্বা লাইন পড়েছে স্বাস্থ্যকেন্দ্রে। সরকারী স্বাস্থ্য আধিকারিকরা মনে করছেন, HIV আক্রান্ত হয়েছে সিন্ধ অন কমপক্ষে 400 জন। এদের অধিকাংশই শিশু।

কী ভাবে এরকম ব্যাপক সংক্রমণ ঘটে গেল গোটা একটা প্রদেশে, তা নিয়ে চিন্তায় সকলে। বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, এই সংক্রমণের পেছনে রয়েছে দেশের কোয়াক ডাক্তাররা। এরাই আবার নাকি পাকিস্তানের চিকিৎসা ব্যবস্থার মেরুদণ্ড।

আরও পড়ুন –ভাটপাড়া নিয়ে রাজ্যপালের কাছে নালিশ বিজেপি নেতৃত্বের

তথ্য বলছে, পাকিস্তানে রয়েছেন প্রায় 6 লক্ষ কোয়াক। এর মধ্যে প্রায় 3 লক্ষই সিন্ধের। মনে করা হচ্ছে সংক্রমিত সিরিঞ্জ থেকেই এরকম এক ভয়ঙ্কর ঘটনা ঘটে গিয়েছে।

এর ফলে গোটা দেশই এখন মহামারীর আতঙ্কে কাঁপছে। কারণ সরকারি পরিসংখ্যানের বাইরে রয়ে গিয়েছে বহু আক্রান্ত। চিকিৎসকরা এখন অস্থায়ী ক্লিনিক বানিয়ে সেখানে রোগীদের রক্ত পরীক্ষা করছেন। লারকানার এক চিকিৎসক জানিয়েছেন, দলে দলে লোক আসছেন রক্ত পরীক্ষা করতে। এই ভয়ঙ্কর পরিস্থিতির জন্য দায়ি কোয়াক ডাক্তাররা।

পাকিস্তানকে HIV প্রবণ দেশ। এটি ছড়িয়ে পড়ছিল যৌন কর্মী ও অসুরক্ষিত ইঞ্জেকশনের মাধ্যমে। পরিসংখ্যান বলছে, 2017 সালে পাকিস্তানে প্রায় 20 হাজার এইডস রোগীর সন্ধান পাওয়া গিয়েছিল। বর্তমানে পাকিস্তান এশিয়ার দ্বিতীয় দেশ, যেখান লাফিয়ে বাড়ছে এইডস।

আরও পড়ুন –রাজীবের বিপদ বাড়িয়ে আইনজীবী ধর্মঘট 24শে পর্যন্ত