জগন্নাথদেবের রথযাত্রা সম্পর্কে 5টি অজানা তথ্য, যা আপনাকে জানতেই হবে

এসবিবি: পুরী জগন্নাথ মন্দিরের রথযাত্রা এক ঐতিহাসিক, ঐতিহ্যশালী উৎসব । প্রতি বছর এই সময় সারা বিশ্ব থেকে লাখো মানুষ জমায়েত হন এই উৎসবে । মূলত, হিন্দুদের উৎসব হলেও সব ধর্মের মানুষ সুযোগ পান রথের দড়িতে হাত দেওয়ার । রথযাত্রা বহুল প্রচলিত উৎসব হলেও কিছু তথ্য আজও অনেকের অজানা । জেনে নিন এমনই কিছু কথা ।

1) পুরাণ অনুযায়ী কুরুক্ষেত্রে যুদ্ধের প্রাঙ্গন থেকে শ্রীকৃষ্ণকে রথে ফিরিয়ে আনারা উদ্দেশ্যেই প্রথম শুরু হয়েছিল রথযাত্রা।

2) শুধু ভারতে নয় । সারা বিশ্বের প্রায় 100টি শহরে পালিত হয় রথযাত্রা । এর মধ্যে রয়েছে ডাবলিন, বেলফাস্ট, বার্মিংহ্যাম, লন্ডন, বাথ, মেলবোর্ন, মন্ট্রিয়েল, প্যারিস, নিউ ইয়র্ক, সিঙ্গাপুর, টরন্টো, অ্যান্টওয়ার্প, কুয়ালালামপুর, লস অ্যাঞ্জেলস, মেক্সিকো সিটি ।

3) ভারতের দ্বিতীয় প্রাচীনতম রথযাত্রা আমেদাবাদের রথযাত্রা । 130 বছরেরও বেশি পুরনো এই রথযাত্রা ।

4) পশ্চিমবঙ্গের মাহেশের রথযাত্রার সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছে বহু প্রাচীন ইতিহাস । 1875 সালে রথযাত্রার উৎসবের সময় একটি বাচ্চা মেয়ে ভিড়ে হারিয়ে যায় । যাকে খুঁজতে পথে নেমেছিলেন সেই সময়ের ডিস্ট্রিক্ট ম্যাজিস্ট্রেট বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায় । যেই ঘটনা উঠে এসেছে রাধারাণী উপন্যাসে ।

5) প্রতি বছর রথযাত্রায় পুরীতে তৈরি করা হয় তিনটি নতুন কাঠের রথ । 2 মাস ধরে তৈরি হয় 45 ফুট উঁচু, 35 বর্গফুটের একেকটি রথ । রথ ঢাকতে লাগে 1200 মিটার কাপড় । 14 থেকে 15 জন দর্জি সেলাই করেন সেই কাপড় ।

উল্টোরথের দিন ফেরার পথে মাসিমা মন্দিরে দাঁড়ায় জগন্নাথ, বলরাম, সুভদ্রার রথ । যেখানে তাদের দেওয়া হয় পোড়া পিঠে । পরে সেই পোড়া পিঠে প্রসাদ হিসেবে বিলি করা হয় ভক্তদের মধ্যে ।