গণ্ডার বাঁচাতে এবার ‘স্পেশাল রাইনো প্রোটেকশন ফোর্স’

এসবিবি : চোরাশিকারিদের দৌরাত্ম্যে প্রায় অবলুপ্তির পথে এক শিঙের গণ্ডার।  কাজিরাঙা অভয়ারণ্যে প্রথমবার মিলিটারি বা ফৌজি নামানো হচ্ছে এবার।  চোরাশিকারিদের হাত থেকে গণ্ডারদের বাঁচাতে, সেই মিলিটারিদের হাতে তুলে দেওয়া হচ্ছে একে 47 অ্যাসল্ট রাইফেলও।  মোট 82 জন মিলিটারির একটি টিম থাকছে গণ্ডারদের রক্ষা করতে।  এ বছরও এখনও পর্যন্ত তিনটি গণ্ডার চোরাশিকারিদের হাতে মারা গিয়েছে।  আর যাতে এই ঘটনা না ঘটে তাই এই কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।  এই মিলিটারি গ্রুপকে বলা হচ্ছে, ‘স্পেশাল রাইনো প্রোটেকশন ফোর্স’।

আরও পড়ুন-বাজেট 2019: মধ্যবিত্তের আয়ে কর ছাড়, চাপ বাড়ল ধনীদের উপর

অসমের কাজিরাঙা অভয়ারণ্যে বহু মানুষ আসেন শুধুমাত্র এই একশৃঙ্গ গণ্ডার দেখতে।  আর সেই গণ্ডারের সংখ্যাই দিন দিন কমে যাচ্ছে।  চোরাশিকারিরা পয়সার লোভে এই শিঙ কেটে নেয়, পাচার হয় চিন বা তার আশেপাশের জায়গা গুলোতে।  কারণ সেখানকার মানুষরা মনে করেন, মানুষের নখ, চুলে যে প্রোটিন আছে, সেটাই গণ্ডারের শিঙে থাকে।  চিন এবং দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার মানুষরা বিশ্বাস করেন, এই শিঙ থেকে ক্যানসারের ওষুধ থেকে শুরু করে জীবনের যে কোনও অভিশাপ কেটে যেতে পারে।  এই শিঙ-এর চাহিদা সবচেয়ে বেশি, কারণ তাঁরা মনে করেন, এই শিঙ থেকেই যৌবন ধরে রাখার ওষুধ তৈরি করা যায়! এই কারণেই নিজের জীবন বিপন্ন হলেও কাজিরাঙায় পৌঁছে যান গণ্ডার মারতে। এবার এই চোরাশিকার ঠেকাতেই এবার তাই ‘স্পেশাল রাইনো প্রোটেকশন ফোর্স’।

আরও পড়ুন-চুক্তিভিত্তিক শিক্ষকদের বেতন বেঁধে দিল হাইকোর্ট