মোদির জয়ে একই সঙ্গে ‘বন্দে মাতরম’, ‘ও কানাডা’ ওটাওয়া সাক্ষী থাকল বিশ্ববাসীর কাছে

এসবিবি :  একক সংখ্যা গরিষ্ঠতায় তিনি ফের জিতেছেন। দেশবাসীর উদ্দেশ্য বলেছেন, “আপনাদের জন্যই আমি আবার জিতে এসেছি।” দেশের মানুষও ভরসা রেখেছেন তাঁর উপর। তিনি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।  লোকসভা নির্বাচনে জয়লাভের পর গেরুয়া শিবিরের দেশে পালন করা হয়েছে বিজয় উল্লাস। কিন্তু এই বিজয় উল্লাসের সুর সাত সমুদ্র তেরো নদী পার হয়ে পারি দিয়েছে বিদেশের মাটিতেও। সুদুর কানাডার রাজধানী ওটাওয়ার নাগরিকরাও ভেসে গিয়েছেন বিজয়ের উল্লাসে।

আরও পড়ুন-টেলিতারকাদের গেরুয়া শিবিরে যোগ দেওয়া প্রসঙ্গে কী বললেন অপর্ণা সেন ?

গত 23 মে, লোকসভা নির্বাচনের ফল ঘোষণা হয়। গত 21 জুন ওটাওয়াতে পালন করা হয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বিজয় উৎসব। অগণিত মোদি অনুরাগি এদিন উপস্থিত ছিলেন এই বিজয় উৎসবে।

রাজনীতিবীদ, শিল্পপতি, আইনজীবী, সমাজসেবী কে ছিলেন না? এই বিজয় উল্লাসে। রাজনীতিবীদ, লেখক এবং আইনজীবী গৌতম ঘোষ নরেন্দ্র মোদির সম্পর্কে বিশ্লষণমূলক কিছু কথা তুলে ধরেন। মোদির আগে এবং পরে বিদেশের সঙ্গে ভারতের সম্পর্কের সমন্ধে স্বচ্ছ ধারনা মেলে ধরেন হল ভর্তি শ্রোতাদের কাছে। সুবক্তা গৌতমবাবুর বক্তব্য মন ছুঁয়ে যায় শ্রোতাদের। করতালির ধ্বণিতে বদলে যায় হলের আবহ। সঙ্গে ছিলেন তাঁর স্ত্রী সমাজাসেবী এবং ব্যবসায়ী জিপসি ঘোষ।

আরও পড়ুন-এবার মহিলা সিআরপিএফ পুলিশ কর্মীদের জন্য পৃথক বর্ম

কানাডার বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মিস্টার ভাটিয়া নরেন্দ্র মোদির সম্পর্কে কিছু বিষয় নিয়ে বিশ্লেষণ করেন। সঙ্গে তুলে ধরেন মোদিজির সাফল্যের দিকগুলি। একইসঙ্গে কানডার মাটিতে সেদিন ধ্বণিত হয় ‘বন্দে মাতরম’ এবং ‘ও কানাডা।’ একগুচ্ছ তরুণ শিল্পীর গান এবং নাচ ভরিয়ে তুলেছিল এদিনের অনুষ্ঠান। পামেলা ভাটিয়া এবং সীমা কুরেশিয়া দুই বিশিষ্ট মহিলার আয়োজন করা এই অনুষ্ঠান নজির গড়ল বিশ্বের কাছে।

আরও পড়ুন-ধোনির অবসর প্রসঙ্গে নিজের অবসরের স্মৃতি উস্কে দিলেন বীরু