রবীন্দ্রনাথ নয়,প্রিন্স মাহমুদের ‘বাংলাদেশ’জাতীয় সঙ্গীত হতে পারত:নোবেল

এপার বাংলার জনপ্রিয় রিয়েলেটি শো সা-রে-গা-মা-পা-তে দ্বিতীয় রানার আপ হয়ে তুমুল জনপ্রিয়তা অর্জন করেছেন বাংলাদেশের তরুণ সঙ্গীতশিল্পী নোবেল। তবে এবার তার সমালচোনায় মুখর হয়েছে সবাই। বছরখানেক আগে দেওয়া নোবেলের এক সাক্ষাতকারই এর জন্য দায়ী। ওই সাক্ষাতকারে দেখা যাচ্ছে নোবেল বাংলাদেশের জাতীয় সঙ্গীত ‘আমার সোনার বাংলা’র পরিবর্তে প্রিন্স মাহমুদের লেখা জেমসের গাওয়া ‘বাংলাদেশ’ গানটিকে বেশি পছ্ন্দের বলে উল্লেখ করেন। 
একটি ইউটিউব চ্যানেলে দেওয়া ওই সাক্ষাতকারের জাতীয় সঙ্গীত বিষয়ক সাক্ষাতকারের অংশটি ভাইরাল হতেই দেশব্যাপী ওঠে সমালোচনার ঝড়। যা ছড়িয়ে গেছে ও
এপার বাংলা পর্যন্ত। কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের বিখ্যাত গান আমার সোনার বাংলা নিয়ে নোবেলের এমন মন্তব্য মানতে পারছে না দুই বাংলাই। তাছাড়া এখন পর্যন্ত এ বিষয়ে কোনও বিবৃতি দেননি নোবেল।
নোবেল মনে করেন, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের গাওয়া জাতীয় সঙ্গীত রূপক অর্থে অনেক কিছু বুঝিয়ে দেয় ঠিকই, কিন্তু প্রিন্স মাহমুদের এই গান তার চেয়ে অনেক বেশি করে বাংলাদেশের মানুষের আবেগকে তুলে ধরে।এমনকী, প্রিন্স মাহমুদের এই গানকে বাংলাদেশের জাতীয় সঙ্গীত করার দাবিতে এক সময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে মিছিলও করা হয়েছিল বলেও দাবি করেন নোবেল।