বাড়ির ছাদে রোদ পোহাল কুমির!

কথায় আছে, “জলে কুমির ডাঙায় বাঘ”। এবার কুমির উঠে এলো ডাঙায়। শুধু তাই নয়, একটি বাড়ির ছাদে উঠে রোদ পোহাল!
এক টানা বৃষ্টিতে বন্যায় বিদ্ধস্ত কর্ণাটক, কেরল ও মহারাষ্ট্রের একাধিক জেলা। কর্ণাটকের প্রায় 17টি জেলার 1,000গ্রাম বন্যায় বিপর্যস্ত। বন্যার জলে ঘর-বাড়ি হারিয়েছেন অনেকেই। তবে, শুধু যে মানুষই ভিটে হারিয়েছে তা নয়। ভিটেছাড়া বন্যপ্রাণীরাও। রবিবার বন্যায় পথভ্রষ্ট হয়ে ডুবে যাওয়া বাড়ির ছাদে আশ্রয় নিল একটি কুমির। বাড়ির ছাদে বসে কুমিরের রোদ পোহানোর ভিডিও ইতিমধ্যেই ভাইরাল হয়ে গিয়েছে।
ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে, একটি প্রায় ডুবে যাওয়া বাড়ির অ্যাসবেস্টাসের ছাদে বসে বিশালাকায় কুমির। কুমির দেখে তুমুল হই-হট্টগোলও করতে দেখা গেল বাসিন্দাদের।

বিশেষজ্ঞদের মতে, সরীসৃপ হওয়ায় কুমির স্বাভাবিক প্রক্রিয়ায় শরীর গরম রাখতে পারে না। তাই অনেকক্ষণ ঠান্ডা জলে থাকার পর কিছুক্ষণ জলের বাইরে রোদে জিরিয়ে নেয় কুমির। স্বাভাবিক পরিস্থিতিতে নদীর পারে উঠে বিশ্রাম নেয় কুমির। কিন্তু, বন্যা পরিস্থিতিতে কোনও স্থল না পেয়ে বাড়ির ছাদেই আশ্রয় নেয় কুমিরটি।

আরও পড়ুন-সারা দেশে স্কুল স্তরে রূপান্তরকামী পড়ুয়াদের বৃত্তি তালিকায় পশ্চিমবঙ্গ দ্বিতীয়