গৌড়ীয় মঠে আজ শ্রীচৈতন্য- মিউজিয়াম উদ্বোধনে মুখ্যমন্ত্রী

উত্তর কলকাতার বাগবাজারে গৌড়ীয় মঠে গড়ে ওঠা বিশ্বের প্রথম শ্রীচৈতন্য- মিউজিয়াম আজ, মঙ্গলবার উদ্বোধন করবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। 2013 সালে তৎকালীন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায় এই মিউজিয়ামের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেছিলেন। মহাপ্রভুর নামে গড়ে ওঠা এই চারতলা মিউজিয়ামে ঢুকলেই নজরে আসবে জয়পুরে তৈরি মহাপ্রভুর পূর্ণাবয়ব মূর্তি। এক তলায় দু’টি গ্যালারিতে মহাপ্রভুর জীবনের বিভিন্ন দিক তুলে ধরা হয়েছে। শ্রীচৈতন্যের জীবন ও চিন্তাধারা নিয়ে আলো ও ধ্বনির প্রদর্শনী ছাড়াও এই সংগ্রহশালায় থাকবে শ্রীচৈতন্যের ব্যবহৃত জিনিস, হাতের লেখা, পাদুকা। মহাপ্রভু এবং তাঁর পার্ষদরা ও সন্ন্যাসের আগে নবদ্বীপের নানা ঘটনা ও পরে পুরী সহ বিভিন্ন জায়গায় মহাপ্রভুর কর্মকাণ্ড তুলে ধরা হয়েছে। বুধবার, 14 আগস্ট থেকে সাধারণ মানুষের জন্য মিউজিয়ামটি খুলছে। প্রবেশমূল্য 20 টাকা। সকাল 10টা থেকে বেলা 1টা এবং বিকেল 3টে থেকে সন্ধ্যা সাড়ে 7টা পর্যন্ত মিউজিয়াম খোলা থাকবে। এই মিউজিয়ামে রয়েছে বিভিন্ন ম্যুরাল, ছবি এবং রিলিফের কাজ। আছে অত্যাধুনিক প্রযুক্তিতে তৈরি ভার্চুয়াল রিয়্যালিটি শো। দর্শক এই শো-র মধ্য দিয়ে সংকীর্তনরত মহাপ্রভুর পাশে নিজেকে অনুভব করতে পারবেন। মহাপ্রভুর তৈরি শিক্ষাব্যবস্থা ও সংস্কৃতিও তুলে ধরা হয়েছে। বিশেষ আকর্ষণ হিসেবে থাকছে মহাপ্রভুর হস্তাক্ষরের অংশবিশেষ। এছাড়া, চতুর্থ তলে থাকছে গৌড়ীয় মঠের প্রতিষ্ঠাতা ভক্তিসিদ্ধান্ত সরস্বতী শ্রীল প্রভুপাদের জীবনের নানা দিক। আছে একটি ছোট অডিটোরিয়াম। গৌড়ীয় মঠের আচার্য ভক্তিসুন্দর সন্ন্যাসী মহারাজ জানিয়েছেন, এই মিউজিয়াম নির্মানে কেন্দ্রীয় মানবসম্পদ উন্নয়ন দপ্তর থেকে 5 কোটি টাকা সাহায্য এনে দেওয়ার ব্যাপারে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী অগ্রণী ভূমিকা নিয়েছিলেন। ঘনবসতিপূর্ণ অঞ্চলে এতবড় মিউজিয়াম গড়ে তোলার ক্ষেত্রেও সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছিলেন। তাই আমাদের আবেদনে সাড়া দিয়ে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তিনি মঠে এসে এই মিউজিয়ামের উদ্বোধন করবেন। বাগবাজার সর্বজনীন দুর্গাপুজোর মাঠে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান হবে। প্রসঙ্গত, গৌড়ীয় মঠের শতবর্ষ অনুষ্ঠানে এসে নির্মীয়মাণ মিউজিয়ামটি দেখে গিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিও।